ঢাকা , রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪ , ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাবে নারিকেল শূন্য বাগেরহাট।

বাংলার জমিন ডেস্ক :
আপলোড সময় : ২৩-১০-২০২৩ ১২:৪০:১৫ অপরাহ্ন
আপডেট সময় : ২৩-১০-২০২৩ ১২:৪০:১৫ অপরাহ্ন
জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাবে নারিকেল শূন্য  বাগেরহাট। ফাইল ছবি :
লবনাক্ত আবহওয়ায়ও নারিকেল উৎপাদনে দেশে বেশ সুনাম ছিলো উপকূলীয় জেলা বাগেরহাটের। কম-বেশি নারিকেল মিলতো জেলার প্রায় প্রতিটি বাড়িতেই। কিন্তু জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাবে প্রায় নারিকেল শূন্য উপকূলীয় জেলা বাগেরহাট।

তবে প্রলয়ঙ্করি ঘূর্ণিঝড় সিডরের আঘাতের পর বদলে গেছে সেই চিত্র। পরিবর্তিত আবহওয়ায় বেড়েছে ক্ষতিকর পোকার আক্রমণ। দেখা দিয়েছে ফলন বিপর্যয়।

স্থানীয়রা বলছেন, ঘূর্ণিঝড় সিডরের পর থেকে অতিমাত্রায় দেখা দিয়েছে ক্ষতিকর পোকার আক্রমণ। অভিযোগ, পোকা থেকে প্রতিকারে কৃষি বিভাগকে জানিয়েও মেলেনি প্রতিকার। ফলে সরবরাহ সংকট ও দাম বেড়ে যাওয়ায় হুমকিতে স্থানীয় পর্যায়ের তেল উৎপাদন শিল্প।

নারিকেল চাষিরা জানান, সাদা মাকড় নামে একটা পোকা এটা যখন নারিকেলের পাতার ওপর পড়ার পর ধীরে ধীরে পাতা কালো হয়ে যায় এবং মূল নারিকেলকে আক্রান্ত করে।

এক সময়ের স্বনির্ভর জেলার এমন উৎপাদন ধসের কথা জানেন কৃষি কর্মকর্তারাও। বলছেন, বিষয়টির সমাধানে জানানো হয়েছে নিজস্ব গবেষণা কেন্দ্রকে।

বাগেরহাট জেলা কৃষি কর্মকর্তা শংকর কুমার মজুমদার জানান, নারিকেলের এ পোকা সম্পর্কে আমাদের গবেষণা কেন্দ্রকে জানানো হয়েছে। আশা করি তারা একটা ফলাফল দিবে।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের হিসাবে বাগেরহাটে ৩ হাজার ৭শ' হেক্টর জমিতে নারিকেল উৎপাদন হয়। এরমধ্যে গত ৫ বছরে ২শ' হেক্টর জমিতে কমে গেছে উৎপাদন।

নিউজটি আপডেট করেছেন : Banglar Jamin

কমেন্ট বক্স

এ জাতীয় আরো খবর

সর্বশেষ সংবাদ