ঢাকা , মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪ , ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রায়ে 'ন্যায়বিচার পাইনি' ,আজিজ মোহাম্মদ

বাংলার জমিন ডেস্ক :
আপলোড সময় : ১২-০৫-২০২৪ ১২:৪২:১০ অপরাহ্ন
আপডেট সময় : ১২-০৫-২০২৪ ১২:৪২:১০ অপরাহ্ন
রায়ে 'ন্যায়বিচার পাইনি' ,আজিজ মোহাম্মদ ফাইল ছবি
নব্বই দশকের চিত্রনায়ক সোহেল চৌধুরী হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় করা মামলায় বৃহস্পতিবার (৯ মে) ব্যবসায়ী আজিজ মোহাম্মদ ভাইসহ তিনজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও বাকি ৬ আসামিকে বেকসুর খালাস দেন আদালত। তবে এই রায়ে 'ন্যায়বিচার পাইনি' বলে মন্তব্য আজিজ মোহাম্মদ ভাইয়ের

বৃহস্পতিবার (৯ মে) দেশের একটি গণমাধ্যমকে তিনি বলেন, সোহেল চৌধুরী হত্যাকাণ্ডের সময় আমি দেশেই ছিলাম না। অথচ আমাকে জড়ানো হয়েছে। তাই বলব, রায়ে ন্যায়বিচার পাইনি। কখনও সুযোগ পেলে দেশে ফিরে সত্য প্রতিষ্ঠায় লড়ব।

আজিজ মোহাম্মদ বলেন, আপিলের সুযোগ থাকলে অবশ্যই করবো। কারণ, ন্যায়বিচার পাওয়ার অধিকার সবার আছে।

এই মুহূর্তে কোথায় আছেন জানতে চাইলে ওই সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন,পৃথিবীতে থাকার মতো অনেক জায়গা রয়েছে। ধরে নেন, পৃথিবীর কোনো এক কোণায় বা প্রান্তে আছি। তবে আকাশে নেই, এতটুকু বলতে পারি। আরেকটা কথা, আমি থাইল্যান্ডেও নেই। যেখানেই আছি, ভালো আছি। আমার পরিবারের সবাইও ভালো আছে। সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন।

বৃহস্পতিবার (৯ মে) চিত্রনায়ক সোহেল চৌধুরী হত্যা মামলার রায়ে ৯ আসামির মধ্যে তিনজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ৬ জনকে খালাস দেওয়া হয়।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ড পাওয়া আসামিরা হলেন, ব্যবসায়ী আজিজ মোহাম্মদ ভাই, ট্রাম্পস ক্লাবের মালিক আফাকুল ইসলাম ওরফে বান্টি ইসলাম ও আদনান সিদ্দিকী।

খালাসপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, তারেক সাঈদ মামুন, সেলিম খান, হারুন অর রশীদ ওরফে লেদার লিটন ওরফে বস লিটন, ফারুক আব্বাসী, ও আশীষ রায় চৌধুরী ওরফে বোতল চৌধুরী।

১৯৯৮ সালের ১৭ ডিসেম্বর রাজধানীর বনানীতে ট্রাম্পস ক্লাবের নিচে সোহেল চৌধুরীকে গুলি করে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় তার ভাই তৌহিদুল ইসলাম চৌধুরী গুলশান থানায় মামলা করেন।
ইত্তেফাক

নিউজটি আপডেট করেছেন : Banglar Jamin

কমেন্ট বক্স

এ জাতীয় আরো খবর

সর্বশেষ সংবাদ