ঢাকা , মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪ , ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কে হচ্ছেন পাকিস্তানে তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রধান!

পাকিস্তানে তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রধান কে হচ্ছেন ?

বাংলার জমিন ডেস্ক :
আপলোড সময় : ০৫-০৮-২০২৩ ০৩:২৬:৩৩ অপরাহ্ন
আপডেট সময় : ০৫-০৮-২০২৩ ০৩:২৬:৩৩ অপরাহ্ন
পাকিস্তানে তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রধান  কে হচ্ছেন ?

তবে শোনা যাচ্ছে এ পদে পারস্পরিকভাবে দলগুলো একজন ব্যক্তিকে নিয়োগ দেয়ার বিষয়ে একমত হয়েছে। তিনি কে তা প্রকাশ করা হয়নি। এ খবর দিয়েছে অনলাইন ডন।

এতে বলা হয়, তিনটি এজেন্ডাকে সামনে নিয়ে শুক্রবার মিত্রদের এক মিটিংয়ে ভার্চুয়ালি সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ। ওই তিন এজেন্ডা হলো- পার্লামেন্ট ও প্রাদেশিক পরিষদ ভেঙে দেয়া, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধানমন্ত্রী বাছাই করা এবং ২০২৩ সালের শুমারির ভিত্তিতে নির্বাচন।
তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রধানের নাম জমা দেয়ার জন্য জোটের কিছু শরিক সময় চেয়েছেন। তবে তারা পার্লামেন্ট ভেঙে দেয়ার সময় হিসেবে ৯ই আগস্টের বিষয়ে একমত হয়েছেন। ওই মিটিংয়ে উপস্থিত ছিলেন পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) চেয়ারম্যান ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি, জমিয়তে উলেমায়ে ইসলাম-ফজলুর (জেইউআইএফ) আমির মাওলানা ফজলুর রেহমান, এমকিউএম-পির আহ্বায়ক খালিদ মকবুল সিদ্দিকী, বেলুচিস্তান আওয়ামী পার্টির নেতা খালিদ মাগসি, প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য মোহসিন দাওয়ার ও আসলাম ভুটানি।

জোটের শরিকরা তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রধানের সম্ভাব্য নামগুলো জমা দেয়ার পর তা থেকে একজনকে বাছাই করা খুব কঠিন কাজ হবে প্রধানমন্ত্রী শেহবাজের জন্য। তার দল পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজের (পিএমএলএন) প্রধান মিত্র পিপিপি এরই মধ্যে ওই পদের জন্য তিনটি নাম জমা দিয়েছে। পিপিপির সিনিয়র একজন নেতা এ তথ্য জানালেও তাদের নাম প্রকাশ করতে চাননি। এখনও নাম জমা দেয়নি এমকিউএমপি, জেইউআইএফ এবং বিএনপি। মোহসিন দাওয়ার দুটি এবং আসলাম ভুটানি দিয়েছেন একটি করে নাম জমা। শনিবারের মধ্যে সব দল সম্ভাব্য নাম জমা দেবে বলে মনে করা হচ্ছে। এসব নাম নিয়ে লন্ডনে অবস্থানরত বড়ভাই ও পিএমএলএন সুপ্রিমো, সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের সঙ্গে কথা বলবেন শেহবাজ শরীফ।

সূত্র বলেছে, এসব নাম থেকে নওয়াজ শরীফ তিনজনের নাম চূড়ান্ত করবেন। তা পার্লামেন্টে বিরোধী দলীয় নেতা রাজা রিয়াজ আহমেদকে জানানো হবে। তবে প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ যে নামই বাছাই করুন না কেন, তাতে নিশ্চিত সমর্থন দেয়ার কথা বলেছেন রাজা রিয়াজ আহমেদ।

শুক্রবার তিনি পার্লামেন্ট অধিবেশনে যোগ দেন। সেখানে তিনি বলেন, পার্লামেন্ট ভেঙে দেয়ার একদিন আগে ৮ই আগস্ট প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তিনি সাক্ষাৎ করতে পারেন। ওদিকে দলীয় মিটিংয়ে যোগ দিতে শনিবার ইসলামাবাদ পৌঁছার কথা পিপিপির সুপ্রিমো, সাবেক প্রেসিডেন্ট আসিফ আলি জারদারির। সেখানে তিনি তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধানমন্ত্রী ইস্যুতে সিদ্ধান্ত নেবেন।

এর আগে পিপিপির নেতা কমর জামান কাইরা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা নিয়ে আলোচনা করেছেন। এরই মধ্যে এই পদে টেকনোক্র্যাট এবং বর্তমানে যেসব ব্যক্তি রাজনীতিতে সক্রিয় আছেন, তাদেরকে নিয়োগ করার বিষয়ে আপত্তির কথা জানিয়ে দিয়েছেন।
এখন পর্যন্ত যেসব নাম তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সম্ভাব্য প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শোনা যাচ্ছে তার মধ্যে আছেন বর্তমান অর্থমন্ত্রী ইসহাক দার, সাবেক প্রধানমন্ত্রী শাহিদ খাকান আব্বাসি, সাবেক অর্থমন্ত্রী ড. আবদুল হাফিজ শেখ, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক মুখ্যসচিব ফাওয়াদ হাসান ফাওয়াদ, সাবেক প্রধান বিচারপতি তাসাদুক হোসেন জিলানি, জাতিসংঘে নিযুক্ত সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি আবদুল্লাহ হোসেন হারুন, পাগারোর পীর শিবঘাতুল্লাহ শাহ রশিদি এবং পাঞ্জাবের সাবেক গভর্নর, পিপিপির নেতা মাখদুম আহমেদ মেহমুদ।

 

নিউজটি আপডেট করেছেন : Banglar Jamin

কমেন্ট বক্স

এ জাতীয় আরো খবর

সর্বশেষ সংবাদ