• রবিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ০৫:৫৮ পূর্বাহ্ন

পদত্যাগপত্রেও ‘বড় ভুল’ করলেন মুরাদ!

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৭১

বাংলারজমিন২৪.কম ডেস্কঃ

ফেসবুক লাইভে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য এবং অডিও ফাঁস হওয়ার পর আলোচনা-সমালোচনায় থাকা তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন। ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) বেলা সোয়া ১২টার দিকে ইমেইলে নিজ দপ্তরে পদত্যাগপত্রটি পাঠান প্রতিমন্ত্রী।

এখন তার পদত্যাগ পত্রটি কার্যকর হওয়ার জন্য মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে জমা দেওয়া হবে বলে জানা গেছে। যদিও দুপুর ১টা পর্যন্ত মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে জমা দেওয়া হয়নি।

এদিকে পদত্যাগপত্রে জামালপুর-৪ আসনের এ সংসদ সদস্য মুরাদ হাসান তার মন্ত্রণালয়ে দায়িত্ব পাওয়ার যে তারিখ উল্লেখ করেছেন সেখানেও ভুল করেছেন। তিনি ২০১৯ সালের ১৯ মে তথ্য মন্ত্রণালয়ে যোগদান করলেও পদত্যাগপত্রে উল্লেখ করেছেন ১৯ মে ২০২১!

এর আগে গতকাল সোমবার ডা. মুরাদ হাসানকে মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপরই মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) দুপুরে পদত্যাগ পত্র সচিবালয়ে পাঠিয়েছেন মুরাদ হাসান। বর্তমানে ডা. মুরাদ হাসান চট্টগ্রামে অবস্থান করছেন বলে জানা গেছে।

আর আজ সকালে, আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কারের ইঙ্গিত দিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ। আগামী কার্যনির্বাহী সভায় তার বহিষ্কারের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে বলে মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) জাতীয় সংসদ ভবনের সামনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

হানিফ বলেন, ‘মুরাদ হাসানকে এরই মধ্যে মন্ত্রিপরিষদ থেকে পদত্যাগ করতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। দল থেকে বহিষ্কারের বিষয়ে দলের আগামী কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে সিদ্ধান্ত হবে।’

গত কয়েকদিন ধরেই বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে আলোচনায় ছিলেন এ প্রতিমন্ত্রী। বিভিন্ন সময় আলোচনা-সমালোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন মুরাদ হাসান।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..