• রবিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ০৬:৩৮ পূর্বাহ্ন

পাওনা টাকা চাওয়ায় চা দোকানদারকে কুপিয়ে হত্যা

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৮৫

বাংলারজমিন২৪.কম ডেস্কঃ

পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র রাজধানীর সবুজবাগ কদমতলায় জহির মুন্সী (২৭) নামে এক চা দোকানদারকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। শুক্রবার (৩ ডিসেম্বর) রাতে কদমতলা হক আবাসিক সোসাইটির । মৃতদেহ উদ্ধার করে শনিবার শনিবার (৪ ডিসেম্বর) দুপুরে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠায় পুলিশ। সেখানে মৃতদেহের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে।

এ বিষয়ে কথা হলে সবুজবাগ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মনোয়ার হোসেন জানান, খবর পেয়ে শুক্রবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে হক সোসাইটি থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

সবুজবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোরাদুল ইসলাম জানান, পাওনা টাকাকে কেন্দ্র করে নাজমুল (২৭) নামে এক যুবকসহ দুইজন তাকে কুপিয়ে হত্যা করেছে। ঘটনার পর নাজমুলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিকেও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

তিনি আরও জানান, নিহতের গলাসহ শরীরে ধারালো অস্ত্রের অসংখ্য আঘাত রয়েছে। এই ঘটনায় নিহতের বাবা বাদী হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

স্বজনরা জানায়, চাঁদপুর সদর উপজেলার সাকুয়া গ্রামের মোকলেস মুন্সি ও জায়েদা দম্পতির ছেলে সে। স্ত্রী ও পরিবার নিয়ে হক আবাসিক সোসাইটিতে থাকতো। এলাকাতে চায়ের দোকান রয়েছে তার। প্রথম স্ত্রীর সাথে তালাক হয়ে গেলে গত ১৫ দিন আগেই সে দ্বিতীয় বিয়ে করেছে। প্রথম সংসারে তার একটি সন্তান রয়েছে।

নিহতের বোন জামাই আ. মতিন জানান, হক সোসাইটির গেটের সামনেই জহিরের চায়ের দোকান। শুক্রবার রাত ১০টা পর্যন্ত সে দোকানে ছিলো। এরপর নাজমুল তাকে ডেকে নেয় জিরানি খালের পাশে। সেখানে চার তলার একটি ভবনের নিচে কয়েকজন মিলে তাকে কুপিয়ে আহত করে। তখন সে দৌড়ে বের হয়ে গেলে সীমানা প্রাচীরের পাশে ফেলে জবাই করে হত্যা করে তারা। তার শরীরে ১৫টির বেশি রক্তাক্ত আঘাত রয়েছে।

তিনি অভিযোগ করে জানান, জহিরের পরিবার সোসাইসির একটি ফ্ল্যাটে ভাড়া থাকাকালে একটি রুম সাবলেট দিয়েছিলো নাজমুলের কাছে। তখন সাত হাজার টাকা বাকি রেখে নাজমুল বাসা ছেড়ে অন্যত্র চলে যায়। এই পাওনা টাকা বিভিন্ন সময় চেয়েও পাচ্ছিলো না জহিরের পরিবার। পাওনা টাকার জের ধরেই নাজমুল তার সঙ্গীদের সাথে নিয়ে জহিরকে কুপিয়ে ও জবাই করে হত্যা করেছে বলে দাবি করেন তিনি।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..