• মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯, ০২:০৪ পূর্বাহ্ন

ভারতীয় পেঁয়াজের রফতানি মূল্য বৃদ্ধির কারণে হিলি স্থলবন্দরে পেঁয়াজের দাম ২ দিনে বেড়েছে কেজিতে ২০ থেকে ২৫ টাকা

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ১৩১ বার পঠিত

মোঃ লুৎফর রহমান, হিলি (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:
ভারতে কাচাঁ পণ্যের মূল্য নির্ধারন সংস্থা ন্যাপিড বাংলাদেশে পেয়াঁজ রপ্তানিতে রপ্তানি মূল্য দ্বিগুন করায় হিলি স্থলবন্দরে বেড়েছে পেয়াঁজের দাম। ২ দিনে ব্যবধানে প্রকারভেদে কেজি প্রতি ২০ থেকে ২৫ টাকা বেড়ে বন্দরে পেয়াঁজ বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৬৫ টাকা। যে পেয়াঁজ বৃহস্পতিবার বন্দরে বিক্রি হয়েছে ৩৮ থেকে ৪২ টাকা কেজি দরে।

ভারতীয় কৃষিপণ্য মূল্য নির্ধারণকারী সংস্থা “ন্যাপিড” গত শুক্রবার হঠাৎ করে পেঁয়াজের রফতানি মূল্য সাড়ে ৩শ ডলার থেকে বাড়িয়ে ৮৫২ মার্কিন ডলার নিধারণ করে। ফলে বন্ধ হয়ে যায় বন্দর দিয়ে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি।

আগের দেয়া সাড়ে ৩শ ডলারে এলসি গুলোর বিপরিতে ভারতের কাষ্টমস কর্তৃপক্ষ পেঁয়াজ রফতানির অনুমতি না দেয়ায় গত শনিবার থেকে বিপাকে পড়ে দেশের পেঁয়াজ আমদানিকারকরা।
আজ রবিবার বিভিন্ন ব্যাংকে পুরনো এলসি গুলো পুনরায় এ্যমানমেন্ড এবং নতুন করে এলসি করে পেঁয়াজ আমদানি করছেন আমদানিকারকরা।

এতোদিন প্রতি মেট্রিক টন পেঁয়াজ ৩শ থেকে সাড়ে ৩শ মার্কিন ডলারে আমদানি করা হলেও এখন থেকে প্রতি মেট্রিক টন পেঁয়াজ ৮৫২ মার্কিন ডলারে ব্যবসায়ীদের আমদানি করতে হচ্ছে।

আমদানিকারক-মাহফুজার রহমন বাবু জানায়, বৃহস্পতিবার হিলি স্থলবন্দরের পাইকারী বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৩৮ থেকে ৪০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। আজ রবিবার ৮৫২ ডলারে আমদানি করা পেয়াজ পাইকারী বাজারে বিক্রি হচ্ছে প্রতিকেজি ৬০ থেকে ৬৫ টাকা দরে। এদিকে ভারত সরকার পেঁয়াজের রফতানি মূল্য বাড়িয়ে দেয়ায় দেশের খোলা বাজারে পেঁয়াজের দাম আরও বেড়ে যাবার আশংখ্যা করছেন তারা।

হিলি অগ্রনী ব্যাংক ম্যানেজার,আফতাবুজ্জামান বলেন, হঠাৎ করে পিযাজের এলসির বিপরীতে ডলার মুল্য বৃদ্ধির কারনে ব্যাবসায়ীরা পুরনো এলসি এ্যমানমেন্ড করছে। আবার অনেকে ৮৫২ ডলারে নতুন এলসি খুলছে।

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..