• মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০, ০২:৩২ পূর্বাহ্ন

করোনায় নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে জামিল হোসেন চলন্ত

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৯ মে, ২০২০
  • ১২৭

হিলি (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ
সারাদেশে করোনাভাইরাস আতঙ্কে সবাই যখন আতঙ্কিত সকলেই যখন যার যার অবস্থান থেকে নেমে যাচ্ছেন ঠিক তখনই করোনাভাইরাস প্রতিরোধ এবং খেটে খাওয়া মানুষগুলোর পরিবারে খাদ্য যোগান দিতে নিজেকে যেনও উৎসর্গ করে দিয়েছেন হাকিমপুর পৌর সভার মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত।

দিনরাত মানুষের মাঝে ছুটে চলায় পৌর মেয়র সর্বস্তরের মানুষের কাছে প্রশংসিত হয়েছেন। সরেজমিনে পৌর সভার বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে জানা গেছে করোনা ভাইরাস এর শুরু থেকে অদ্যবধি তিনি সর্বস্তরের সকল শ্রেণীর মানুষের কাছে প্রশংসিত হয়েছেন। করোনা থেকে মানুষকে বাঁচাতে তিনি নিজে দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।

পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত সাথে আলোচনা করে তিনি বিভিন্ন পদপে গ্রহণ করছেন পৌর হাটবাজারের সমাবেশে মানুষের সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার করোনা ভাইরাস সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি করে যাচ্ছেন। খেটে খাওয়া মানুষ গুলোর জন্য চিন্তার শেষ নেই।

প্রতিটি পাড়ায় মহল্লায় দ্বারে দ্বারে গিয়ে খোঁজ খবর নিচ্ছেন। জাদের খাবার নেই খাদ্যসামগ্রী অসহায় মানুষগুলোর সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন তিনি। তার পৌর সভাই ৮ হাজার পরিবারের মাঝে খাদ্য বিতারণ করেণ।

এছাড়া যেসকল মধ্যবিত্ত পরিবার কারো কাছে চাইতে পাচ্ছেন না তাদের জন্য তিনি ফোনে বা মেসেঞ্জারে জানতে বলেছেন তারা বলেছেন তাদের কাছে চুপিসারে খাদ্য পৌঁছে দিয়ে আসতেছেন তিনি।

এবিষয়ে জানতে চাইলে,হাকিমপুর হিলি পৌর মেয়র জামিল হোসন চলন্ত জানান, এমপি শিবলী সাদিক এই দুর্যোগে মানুষকে ঘরে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন। যারা তার আহ্বানে সাড়া দিয়েছেন, বিশেষ করে নিম্নবিত্ত মানুষদের প্রতি আমি গুরুত্ব দিয়েছি।

ঘরে থাকার জন্য তাদের সম্মান ও শ্রদ্ধা জানিছেন।উপহার হিসেবে বাড়ি বাড়ি খাবার সামগ্রী নিয়ে যাচ্ছি। এতে বেশ সাড়াও পাচ্ছি। উপর সামগ্রী বিতরণের প্রতিটি ঘটনাই যেন আমার কাছে একটি বিস্ময়কর ঘটনা। আমি দেখেছি তাদের চোখে মুখে আনন্দের ঝিলিক। কেউ আবেগে চোখ মুছেছেন।

মরণব্যাধি করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব রোধে তার বিভিন্ন পদপে ইতিমধ্যেই পৌর মেয়র সর্বস্তরের মানুষের কাছে প্রশংসিত হয়ে উঠেছে অনেকেই বলেছেন ।

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..