• শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ০১:৪০ অপরাহ্ন

করোনাভাইরাসে লুইসভিল ইউনিভার্সিটির বিজ্ঞানীরা একটি নতুন প্রযুক্তির উন্নয়ন করেছেন

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৮ এপ্রিল, ২০২০
  • ৩৪

বাংলারজমিন২৪কম ডেক্স-
প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে বিশ্বব্যাপী আক্রান্তের সংখ্যা বর্তমানে ৩০ লাখের বেশি। বিজ্ঞানীরা মরিয়া হয়ে এই রোগের চিকিৎসা আবিষ্কারে কাজ করে চলেছেন।

আর এবার লুইসভিল ইউনিভার্সিটির বিজ্ঞানীরা একটি নতুন প্রযুক্তির উন্নয়ন করেছেন এবং তাঁদের বিশ্বাস, এই প্রযুক্তি ভাইরাসটিকে মানুষের কোষে সংক্রামিত হতে বাধা দিতে পারে।

প্রযুক্তিটি ‘অ্যাপটেমার’ নামক কৃত্রিম ডিএনএর একটি অংশ, যা ‘নিউক্লিওলিন’ নামক এক ধরনের মানব প্রোটিনকে লক্ষ্যবস্তু করে কাজ করতে পারে। এ গবেষণা এখনো প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে, তবে পরীক্ষায় দেখা গেছে, নিউক্লিওলিন প্রোটিনকে প্রভাবিত করা থেকে শুরু করে শরীরের অভ্যন্তরে অনুলিপি তৈরি করা থেকে করোনাভাইরাসকে বিরত রাখতে পারে অ্যাপটেমার।

ইতিমধ্যে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অ্যাপটেমার প্রয়োগ করা হচ্ছে- বিশেষ করে ক্যানসারের চিকিৎসায় পরীক্ষামূলক ওষুধ হিসেবে।

গবেষণা প্রকল্পটির প্রধান গবেষক পলা বাটস বলেন, ‘অ্যাপটেমার ডোজ হিসেবে করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে কার্যকরী হিসেবে দেখা গেছে। আগের গবেষণাগুলোতে দেখা গেছে, এটি রোগীদের জন্য নিরাপদ।’

গবেষক দলটি এখন প্রত্যাশা করছে, অ্যাপটেমারকে করোনার ব্যবহারযোগ্য চিকিত্সা হিসেবে মূলায়নের জন্য ফলোআপ পরীক্ষা পরিচালনা করার।

করোনার চিকিৎসায় ইতিমধ্যে অন্যান্য বিজ্ঞানীরা বেশ কয়েকটি বিকল্প চিকিৎসা নিয়ে কাজ করছেন। এর মধ্যে রয়েছে রেমডেসিভির- ইবোলার চিকিত্সার জন্য ব্যবহৃত ওষুধ এবং লোপিনাভার– এইচআইভি চিকিৎসার জন্য ব্যবহৃত ওষুধ।

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..