• রবিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৪:১৮ পূর্বাহ্ন

হালদা নদীতে অবৈধ বালু উত্তোলনের ড্রেজার ধ্বংস

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১১ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ৪৪ বার পঠিত

মাহমুদ আল আজাদ,হাটহাজারী(চট্টগ্রাম)প্রতিনিধিঃ-

দক্ষিন পূর্ব এশিয়া মহাদেশের একমাত্র মিঠা পানির মৎস প্রজজন কেন্দ্র হালদা নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনে ব্যবহৃত ড্রেজার জব্দ করে ধ্বংস করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। সোমবার(১০ফেব্রুয়ারি) দুপুরে হাটহাজারী উপজেলার ইন্দিরা ঘাট এলাকায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুহুল আমিন বিশেষ অভিযান চালিয়ে নদী থেকে বালু উত্তোলনের সময় ড্রেজার জব্দ ও প্রায় এক কিলোমিটার পাইপ জব্দ করা হয়। তবে বালু উত্তোলনের সময় কাউকে ঘটনাস্থলে পাওয়া যায়নি। নদী থেকে ড্রেজার ও ব্যবহৃত পাইপ ধ্বংস করে দেয়।

স্থানীয় নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ব্যক্তিরা বলেন,ক্ষমতাশীন দলের নাম ভাঙ্গিয়ে কিছু নামধারী নেতারা অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন করে প্রশাসনের অগোচরে। একদিকে প্রশাসন নিরলস ভাবে হালদা নদী বাচাতে কাজ করে যাচ্ছে অপর দিকে অবৈধ বালু উত্তোলন করে নদী ধ্বংস করতে চাই। বালু খেকোদের কারনে হালদার বুকে থাকা ড্রেজারের আঘাতে মা মাছ সহ ডলফিন মরে ভেসে উঠে। তাদের আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তির দাবি করেন স্থানীয় জনগন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুহুল আমিন বলেন, হালদা নদী বাচাতে বিশেষ অভিযান চালিয়ে ইন্দ্রিরা ঘাটে বালু উত্তোলনের ব্যবহৃত যন্ত্র ড্রেজার মেশিন ও এক কিলোমিটার পাইপ ধ্বংস করা হয়। প্রশাসন হালদা নদী দূষণ মুক্ত রাখতে সব সময় অভিযান পরিচালনা করে নিষিদ্ধ ভাসা জাল সহ অবৈধ বালু উত্তোলনের যন্ত্রপাতি জব্দ করে আসছে।তবে এসব কাজে জড়িতদের আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে বলেও তিনি জানান।

অভিযানের সময় প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা নিয়াজ মোরশেদ ও থানা পুলিশের ফোর্স উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, গত ১৫ মাসে ৭ টি ড্রেজার এবং ১২ টি বালু উত্তোলনে ব্যবহৃত ইঞ্জিন চালিত নৌকা ধ্বংস করা হয়েছে।

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..