• বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:৩২ অপরাহ্ন

কমলগঞ্জে জোরপূর্বক কিশোরী ধর্ষণ,ধর্ষণ আটক

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১০ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ২২৪

আলমগীর হোসেন,(কমলগঞ্জ) মৌলভীবাজার:
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে ১৭ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণ করার অভিযোগে উঠেছে। এ অভিযোগে স্থানীয়রা সালাম মিয়া (৩৬) নামের এক ব্যক্তিকে শনিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

আটক সালাম উপজেলার আদমপুর ইউনিয়নের উত্তরভাগ গ্রামের মৃত রইছ মিয়ার ছেলে। ‘ধর্ষণের শিকার’ কিশোরী বর্তমানে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ঘটনায় কিশোরীর মা ছফিনা বেগম বাদী হয়ে কমলগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

ছফিনা বেগম জানান, গত শুক্রবার (৭ ফেব্রুয়ারি) তার ছোট মেয়ে ও ছেলেকে বাড়িতে রেখে তিনি বড় মেয়ের স্বামীর বাড়িতে যান। পরদিন শনিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) ভোররাতে তার কিশোরী মেয়ে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘরের বাইরে বের হলে সালাম তার মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে উত্তরভাগ গ্রামের প্রবাসী কফিল মিয়ার ভাড়া বাসায় নিয়ে যায়। পরবর্তীতে সালাম ওই কিশোরীকে জোরপূর্বক একাধিকবার ধর্ষণ করে।

তিনি আরও জানান, শনিবার সকালে তিনি বাড়িতে এসে মেয়েকে না পেয়ে আত্মীয়-স্বজনকে অবগত করে খোঁজাখুঁজি করতে থাকেন। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে ওইদিন বিকেল ৪টায় উত্তরভাগ গ্রামের প্রবাসী কফিল মিয়ার ভাড়া বাসার দরজার তালা ভেঙে তার মেয়েকে হাত ও মুখ কাপড় দিয়ে বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করেন। তখন ওই ঘরে থাকা সালাম পালানোর চেষ্টা করলে স্থানীয়রা তাকে আটক করে থানায় সোপর্দ করেন।

কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আরিফুর রহমান ধর্ষণের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘এ ঘটনায় ধর্ষণের শিকার কিশোরীর মা বাদী হয়ে একটি মামলা করেছেন। আটক সালামকে রোববার (৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।’

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..