• রবিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৫:০১ পূর্বাহ্ন

গোসাইরহাটে ফসলি জমি রক্ষায় কৃষকের মানববন্ধন

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ৩৫৬ বার পঠিত

রাজিব হোসেন রাজন, শরীয়তপুর প্রতিনিধিঃ শরীয়তপুরে গোসাইরহাট উপজেলার সামন্তাসা ইউনিয়নের চর সামন্তাসা গ্রামে ফসলি জমি রক্ষার জন্য বুধবার বিকাল ৫ টায় মানববন্ধোন করেন ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা।

এ সময় মানববন্ধোনে অংশগ্রহণ করেন স্থানীয় ইউপি মেম্বার আব্দুস সালাম তপাদার, মোঃ আবুল বাশার, কৃষক মোজাম্মেল হাওলাদার, শহিদুল আকন, আনোয়ার হোসেন হাওলাদার, মোখলেছুর রহমান হাওলাদার, শওকত আলী হাওলাদারসহ শতাধিক নারী পুরুষ ও শিশুরা উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় উপস্থিত কৃষকরা জানায় প্রভাবশালী একটি মহল তাদের তিন ফসলী শতাধিক একর জমি জোরপূর্বক ভেকু মেশিন দিয়ে রাতের আধারে মাটি কেটে মাছ চাষের জন্য ঘেরাও করে ফেলে। ফসলি জমি রক্ষার জন্য ইতিমধ্যে কৃষকরা গোসাইরহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার আলমগীর হোসেন এর কাছে ফসলী জমি রক্ষার জন্য আবেদন করেন। এই সংবাদ পেয়ে প্রভাবশালী মহলের এক সদস্য মজিবর রহমান হাওলাদার প্রতিবাদী কৃষকদের ভয়ভীতি প্রদর্শন করেন। ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা কামনা করে।

প্রভাবশালী মজিবর রহমান হাওলাদারের বাড়িতে গেলে তাকে পাওয়া যায়নি,তবে তিনি মুটোফোনে জানান শরীয়তপুর শহরের আলম মাদবরের ছেলে আরমান মাদবর ফসলী জমিতে এ মৎস প্রকল্পটি করেন, এতে আমার কোন হাত নেই।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আলমগীর হোসেন বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক আমার কাছে একটি আবেদন করে। আবেদনের প্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট তহসিলদারকে দিয়ে বিষয়টি তদন্ত করাই। তারপরও আজ বিকাল ৪ টায় আমি সরেজমিন তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। ফসলি জমিতে কোন অবস্থাতেই মৎস খামার করা যাবে না।

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..