• বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৪:৫৪ পূর্বাহ্ন

কর্মক্ষেত্রে বড় ধরনের চাপ যেভাবে সামলাবেন

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৩০ জানুয়ারী, ২০২০
  • ৬৪ বার পঠিত

অনলাইন ডেস্কঃ কাজ, কাজ, কাজ করেই তো সপ্তাহের পাঁচ থেকে ছয় দিন অফিসে ব্যস্ত থাকতে হয়। একদিকে অফিসের হাজারো কাজ আর অন্যদিকে দৈনন্দিন জীবনের নানা বিষয় মাথায় চাপ তৈরি করে। হাজারো চাপ মাথায় নিয়ে আমাদের সামনে এগিয়ে যেতে হয়। চাপের কারণে তৈরি হয় দুশ্চিন্তা। আর বেশি দুশ্চিন্তায় মানসিক হতাশায় ভুগতে থাকি আমরা। মানসিক হতাশায় অফিস-পরিবার—দুই জগতেই আমরা বাধিয়ে ফেলি ভজকট।

হার্ভার্ড বিজনেস রিভিউ-এর তথ্যমতে, কর্মক্ষেত্রে তাঁরাই সফল হন যাঁরা ব্যক্তিগত জীবনের চাপ আর অফিসের চাপ আলাদা করে মানিয়ে নেন। বাড়ির চিন্তা কর্মক্ষেত্রে মাথায় নিলে কাজে যেমন ব্যাঘাত ঘটে, তেমনি অফিসের কাজের চাপ বাড়িতে করলে পারিবারিক জীবনে দুশ্চিন্তা তৈরি হওয়া স্বাভাবিক। ব্যক্তিগত জীবন আর অফিসজীবনের চাপ মোকাবিলার জন্য আমেরিকায় নিয়মিত অফিসের কর্মীদের মানসিক চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার পরামর্শ দেয় বড় বড় করপোরেট প্রতিষ্ঠান। বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ওয়েকআপ বাংলাদেশের পরামর্শক রুবিনা খান চাকরির মানসিক চাপ সামলানোকে একজন কর্মীর ব্যক্তিত্বের স্বকীয়তা হিসেবে মনে করেন। তিনি বলেন, ‘চাকরি আর ব্যক্তিজীবনের বিভিন্ন চাপকে আলাদা করেই গুরুত্ব দেওয়া উচিত প্রত্যেক মানুষের। চাকরি আর ব্যক্তিগত জীবনের চাপ মিলিয়ে ফেললে ভুল সিদ্ধান্ত নেওয়ার প্রবণতা বাড়ে। শুধু তা-ই নয়, মানসিক চাপের কারণে হতাশায় জীবন অতিষ্ঠ হয়ে ওঠে।’

মানসিক চাপ সামলাতে যা করতে পারেন
* কোনো বিষয়ে অযথা কিংবা অযৌক্তিক দুশ্চিন্তা করবেন না। সমস্যার সমাধান দুশ্চিন্তা দিয়ে নয়, বুদ্ধি দিয়ে করুন।
* অফিসের কাজ বাড়িতে না টেনে আনার অভ্যাস করুন। বাড়িতে অফিসের কাজ করলে ধীরে ধীরে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দূরত্ব বাড়ে।
* মাঝেমধ্যে কাজের বিরতিতে কোথাও থেকে ঘুরে আসুন। কর্মবিরতি উপভোগ করুন পরিবারের সঙ্গে। এতে মন প্রফুল্ল থাকে আর কাজেও
মন বসে।
* অতিরিক্ত চাপের সময় অফিসের সহকর্মীদের সহযোগিতা নিন। আমরা বেশির ভাগ সময় কাজ নিজেই করার চেষ্টা করি, সে ক্ষেত্রে সহকর্মীদের সঙ্গে পরামর্শ করলে কাজ দ্রুত করার উপায় পাওয়া যায়।
* দুশ্চিন্তা বেশি করলে নিয়মিত মনোরোগ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। দীর্ঘদিনের দুশ্চিন্তায় শরীরে বড় রোগ ভর করার ঝুঁকি বাড়ে।
* অফিসের পরের সময়টুকু সৃজনশীল কোনো কাজে ব্যয় করুন।
মানসিক চাপ নিয়ে যা করবেন না
* অফিসের কাজের জন্য বাড়িতে এসে পরিবারের সদস্যদের ওপর রাগ দেখানো থেকে বিরত থাকুন।
* চাপ সামলাতে না পেরে সহকর্মীদের সঙ্গে কিংবা বসের সঙ্গে
অনেকেই রাগ দেখানোর চেষ্টা করেন। এ ধরনের আচরণ থেকে নিজেকে সংযত রাখুন।
* মানসিক চাপ নিতে না পেরে কাজে ফাঁকি দেওয়া, দেরি করে অফিসে যাওয়ার মতো বদভ্যাসে ঝুঁকে পড়েন অনেকে। এ ধরনের বদভ্যাস পরিহার করুন।

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..