• বুধবার, ০৮ জুলাই ২০২০, ০৬:০০ অপরাহ্ন

নড়াইলে মাদক সেবন করা নিয়ে বিশাল সংঘর্ষ, পুলিশ মোতায়েন

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১৮ জানুয়ারী, ২০২০
  • ৬২

উজ্জ্বল রায়, নড়াইল থেকেঃ মাদক সেবন করা নিয়ে বিশাল সংঘর্ষ বিপুল পরিমান পুলিশ মোতায়েন। নড়াইলের কালিয়া উপজেলার নড়াগাতি থানার খাশিয়াল গ্রামে মাদকসেবনে বাঁধা দেয়ায় দুই দল গ্রামবাসীর মধ্যে দুই দফায় সংঘর্ষ হয়েছে।

উজ্জ্বল রায় নড়াইল থেকে জানান, এ ঘটনায় দুইগ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে।, এলাকাবাসী জানান, পুঠিমারী গ্রামের সাইফুল শেখ, হৃদয় শেখ ও ছবির শেখ দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় মাদক সেবন করে আসছে। তারা খাশিয়াল গ্রামের হিমায়েত শিকদারের বাড়িতে নেশা করে বলে অভিযোগ রয়েছে। গত ৬ জানুয়ারি বেলা ১১টার দিকে তারা হিমায়েত শিকদারের বাড়িতে গিয়ে নেশা চায়লে খাশিয়াল গ্রামের মুনছুর শিকদারের ছেলে আতাউর শিকদার বাঁধা দেয়। এ সময় মাদকসেবীরা ক্ষিপ্ত হয়ে আতাউরকে মারপিট করে এবং তাকে ঠেকাতে গেলে মাদকসেবীরা খাশিয়াল ইউপি সদস্য কাবির বিশ্বাস ও গ্রামবাসী ইমামুল শিকদারের শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় তাদের খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় আতাউর শিকদার বাদী হয়ে নড়াগাতি থানায় ১০ জনের নামে মামলা করেন। পুলিশ ফেরদৌস এক যুবকে গ্রেফতার করে। এরপর অন্য আসামিরা ১৫ জানুয়ারি আদালতে হাজিরা দিয়ে জামিনে আসেন। ওইদিন খাশিয়াল ইউনিয়নের বরফা খেয়াঘাট পার হয়ে বাড়ি ফেরার সময় ৩০ থেকে ৩৫ জন গ্রামবাসী জামিনপ্রাপ্তদের এগিয়ে নিতে আসেন। পথে খাশিয়াল গ্রামের কয়েকজনের সঙ্গে দেখা হলে জামিনপ্রাপ্তরা তাদের কটূক্তি করে বলে অভিযোগ রয়েছে। এ নিয়ে দুইগ্রুপের মধ্যে উত্তেজনার এক পর্যায়ে আবারো সংঘর্ষ বেঁধে যায়। এ সময় খাশিয়াল গ্রামের জুয়েল শেখ, ঝন্টু বিশ্বাস, খায়ের শেখ, পুঠিমারী গ্রামের রাইসুল শেখ ও চয়ন ফকির আহত হন। আহতদের মধ্যে গুরুতর অবস্থায় জুয়েল শেখকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে ।

এ ব্যাপারে নড়াইলের নড়াগাতি থানার ওসি আলমগীর কবীর জানান, এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..