• মঙ্গলবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২০, ০৫:১০ পূর্বাহ্ন

কোন পুরুষরা বেশি নারী নির্যাতন করে, জানেন?

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ৫৪ বার পঠিত

অনলাইন ডেস্কঃ সব পুরুষরাই নারী নির্যাতন করেন না। বরং আমাদের আশেপাশে এমন অনেক নারীবন্ধব পুরুষ রয়েছেন, যারা সবসময় মেয়েদের সহযোগিতা করে থাকেন। ভেবে দেখুন, প্রথম জীবনে বড় ভাই এবং পরবর্তীতে উচ্চশিক্ষিত স্বামী সাখাওয়াৎ হোসেনের সহযোগিতা না পেলে নারী জাগরণের অগ্রদূত বেগমে রোকেয়ার পক্ষে কি শিক্ষিত হওয়া সম্ভব ছিলো? আর এমনটি না হলে তার পক্ষে নারীদের উন্নয়নে কাজ করাও সম্ভব ছিল না। তাই সব পুরুষ নয়, কিছু পুরুষ নারীদের ওপর অপেক্ষাকৃত বেশি নির্যাতন চালিযে থাকে। তারা কারা? চলুন তাহলে জেনে নেয়া যাক।

সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা যায়, যেসব পুরুষরা মাদকাসক্ত বা মাদকের উপর নির্ভরশীল থাকে, অন্যদের তুলনায় নারীদের উপর পারিবারিক নির্যাতন চালানোর আশঙ্কা তাদের ছয় থেকে সাত গুণ বেশি থাকে। পিএলওএস-মেডিসিন নামে একটি অনলাইন জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে এই গবেষণাটি। গত ১৬ বছর ধরে সুইডেনে হাজার হাজার মেডিকেল রেকর্ড এবং পুলিশের তথ্য বিশ্লেষণ করে তৈরি করা হয়েছে এই গবেষণা রিপোর্ট।

এতে আরো বলা হয় যে, যেসব পুরুষের মানসিক অসুস্থতা বা আচরণগত সমস্যা রয়েছে তাদেরও সঙ্গীর প্রতি সহিংস হওয়ার আশঙ্কা বেশি থাকে। তবে এদের সবগুলোই মদ্যপান বা মাদক ব্যবহারের কারণে হয়েছে বলে গবেষণায় উল্লেখ করা হয়নি।

এই গবেষণার নেতৃত্ব দিয়েছেন অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক সিনা ফজল। তিনি বলেন, এই গবেষণার ফলাফল থেকে বোঝা যায় যে, উন্নত অষুধ এবং অ্যালকোহল চিকিৎসা সেবার মান উন্নয়ন এবং অপরাধীদের উপর নজরদারি বাড়িয়ে পারিবারিক নির্যাতন কমিয়ে আনা সম্ভব।

বিবিসি নিউজকে অধ্যাপক ফজল বলেন, ‘দোষীদের জন্য যে চিকিৎসা কর্মসূচিগুলো ছিল সেগুলো আজ পর্যন্ত খুব একটা কার্যকর হয়নি। আর এটি ঝুঁকির বিষয়গুলো সম্পর্কে মানসম্মত নথির অভাবকেই প্রতিফলিত করে।’

গবেষণায়, ১৯৯৮ সালের জানুয়ারি থেকে ২০১৩ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র, সুইডেন এবং লন্ডনের কিংস কলেজের বিশেষজ্ঞরা, ১ লাখ ৪০ হাজার পুরুষ যারা মদ্যপান কিংবা মাদক ব্যবহারজনিত সমস্যায় ভুগে চিকিৎসা নিয়েছেন তাদের তথ্য বিশ্লেষণ করেছেন।

গবেষকরা দেখেছেন, এদের মধ্যে অনেকেই পরবর্তীতে তাদের স্ত্রী, নারীবন্ধু কিংবা সাবেক নারী সঙ্গীকে হুমকি, আক্রমণ, কিংবা যৌন নির্যাতনের জন্য গ্রেপ্তার হয়েছেন।

গবেষণা বলছে, অ্যালকোহলে নির্ভরশীল ১.৭ ভাগ পুরুষ নারী নির্যাতনের অপরাধের ঘটনায় গ্রেপ্তার হয়েছে। এটি একই পরিমাণ ও সমবয়সী অন্য পুরুষদের তুলনায় ৬ গুণ বেশি।

তাই পারিবারিক সহিংসতা ঠেকাতে এই গবেষণাকে সতর্কতার সাথে গ্রহণ করার পরামর্শ দিয়েছেন ইংল্যান্ড ও ওয়েলসের ভিকটিম কমিশনার ডেম ভেরা বাইর্ড।

তিনি বলেন, ‘অনেক অপরাধী যারা মদ্যপ অবস্থায় পারিবারিক নির্যাতন চালায়, স্বাভাবিক অবস্থায়ও তারা সহিংস এবং আধিপত্য বাদী হয়।’

তাই বলে এমন নয় যে, কেবল মাদকাসক্তরাই নারী নির্যাতন করে থাকে, বকি পুরুষেরা সবাই সাধু! আসলে মাদক নেয় না, কিংবা জীবনে একবারও মাদক নেননি তারও নারী নির্যাতন করে থাকে।

তাই ব্রিটিশ কমিশনার ডেম ভেরা বাইর্ডের পরামর্শ, ‘অনেক পারিবারিক নির্যাতনকারীর যেহেতু অ্যালকোহল বা মাদকের সমস্যা থাকে না তাই পারিবারিক নির্যাতন প্রতিরোধ কর্মসূচি থেকে নজর সরিয়ে শুধু মদ্যপান এবং মাদকের অপব্যবহারের দিকে মনোযোগ দেয়াটা ঠিক হবে না।’

সূত্র: বিবিসি বাংলা

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..