• শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ১২:৪৩ পূর্বাহ্ন

ময়মনসিংহে ডিবি’র সাথে বন্দুক যুদ্ধে ১ জন নিহত

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ১৬৩

মিজানুর রহমান,ময়মনসিংহ প্রতিনিধিঃ

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার সারহাইল এলাকায় গোয়েন্দা পুলিশ ডিবি’র সঙ্গে কতিথ বন্ধকযুদ্ধে আঃ রশিদ (৪০) নামে এক আন্তঃজেলা মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে ২০০ গ্রাম হেরোইন, ১০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট ও ৫টি কার্তুজের খোসা উদ্ধার করা হয়। সে উপজেলার ঘাগড়া এলাকার বাসিন্দা হাফিস উদ্দিনের ছেলে বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় পুলিশের এক কর্মকর্তা গুরুতর আহত হয়। তাকে উদ্ধার করে জেলা পুলিশলাইন্স হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। আহত পুলিশ সদস্য হলেন, জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক এসআই মোঃ শামীম আল মামুন।

বুধবার (১২ ডিসেম্বর) রাত ১ দিকে এ বন্ধুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ শাহ কামাল আকন্দ এই খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে গনমাধ্যমকর্মীদের জানান, চলমান মাদক বিরোধী অভিযানের অংশ হিসাবে ডিবি’র দুইটি টিম মধ্যরাতে ঈশ্বরগঞ্জ উপজলায় মাদক বিরোধী অভিযান চলাকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে সারহাইল নামক স্থানে আন্তঃজেলা মাদক ব্যবসায়ী রশিদ বিপুল পরিমাণ মাদক দ্রব্য বিক্রয়ের জন্য অবস্থান করছে। পরে ডিবি’র দুইটি টিম ওই স্থানে পৌছা মাত্রই সংঘবদ্ধ মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে অতর্কিতভাবে গুলি করতে থাকে। তাদের গুলিতে ০১(এক) পুলিশ সদস্য আহত হয়।তখন পুলিশ সরকারী সম্পদ এবং আত্নরক্ষার্থে ১১ রাউন্ড শর্টগানের ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে। এক পর্যায়ে সংঘবদ্ধ মাদক ব্যবসায়ীরা গুলি করতে করতে পালিয়ে যায়।

ঘটনাস্থল থেকে মাদক ব্যবসায়ী আঃ রশিদ (৪০) কে আহত অবস্থায় পাওয়া গেলে তারদেহ তল্লাশী করে থেকে ২০০ শত গ্রাম হেরোইন, ১০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট ও ০৫টি কার্তুজের গুলি উদ্ধার করা হয়।

পলাতক মাদক ব্যবসায়ীদের ছোড়া গুলিতে আহত মাদক ব্যবসায়ীকে ঈশ্বরগঞ্জ থানা পুলিশের সহায়তায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রশিদকে মৃত ঘোষণা করেন। তার বিরুদ্ধে ১৩ টি মাদকের মামলা আছে বলেও জানিয়েছেন পুলিশের কর্মকর্তা।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..