• রবিবার, ১৬ মে ২০২১, ০৫:৫৪ অপরাহ্ন

নড়াইলে স্যানিটারি দোকান ও প্রবাসীর বাড়িতে দিনে-দুপুরে দূর্ধর্ষ চুরি

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ১০৭

উজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা প্রতিনিধি

নড়াইল শহরের রূপগঞ্জ এলাকায় ভওয়াাখালী দেবদারু তলায় শেখ স্যানিটারি দোকানে চুরি ও নড়াইলের গোপীনাথপুর গ্রামে একজন প্রবাসীর বাসা-বাড়িতে দিনে-দুপুরে দূর্ধর্ষ চুরি সংঘটিত হয়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, সোমবার (৯ডিসেম্বর) সকাল ১০ টার দিকে জেলার লক্ষীপাশা ইউনিয়নের বয়রা গ্রামের মৃত কাজী নিজাম উদ্দিনের ছেলে সৌদি প্রবাসী কাজী ইমরান হোসেনের গোপীনাথপুরস্থ ভাড়া বাসা-বাড়িতে অজ্ঞাত চোরেরা মুল ফটকের হ্যাজবোল্ড কেটে ভেতরে প্রবেশ করে। ঘরের আলমারিতে রক্ষিত নগদ ৫০ হাজার টাকা, হাতের ৪ ভরি ওজনের ৪টি রুলি, ১২ আনা ওজনের একজোড়া কানের দুল, প্রায় আড়াই ভরি ওজনের ৯টি আংটি, ২ ভরি চার আনা ওজনের ১টি নেকলেস চুরি করে নিয়ে গেছে। চুরি যাওয়া মালামালের আনুমানিক মুল্য ৬ লক্ষ ৮ হাজার টাকা।

প্রবাসীর স্ত্রী আদরি খাতুন গণমাধ্যম কর্মীদের বলেন, গত রোববার দুপুর একটার দিকে সে এবং তার শ্বাশুড়ী গ্রামের বাড়ি বয়রাতে বেড়াতে যান। এ সুযোগে চোরেরা সোমবার সকাল দশটার দিকে বাসা-বাড়িতে ঢুকে নগদ টাকাসহ স্বর্ণালংকার চুরি করে নিয়ে যায়। পাশের ফ্লাটের ভাড়াটিয়া মোবাইল ফোনে তাকে বিষয়টি অবহিত করলে তিনি ছুটে আসেন বাসায়। খবর পেয়ে সোমবার দুপুরে নড়াইলের লোহাগড়া থানার এসআই এনামুল হক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান প্রবাসীর পরিবার।

অপরদিকে নড়াইল শহরের রূপগঞ্জ এলাকায় ভওয়াাখালী দেবদারু তলায় শেখ স্যানিটারি দোকানে চুরি হয়েছে। দিবাগত রাতে এ চুরির ঘটনা ঘটে। ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী মোঃ তৈয়েবুর রহমান দেলোয়ারের দাবি, প্রায় নগদ কুড়ি হাজার টাকাসহ আরো পাঁচ লাখ টাকার মালামাল চুরি হয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী জানান, গভীর রাতে দোকানের পিছনে টিনের চালা কেটে চোরেরা দোকানের মধ্যে প্রবেশ করে। এরপর দোকান থেকে ছয়টি পানির মোটর নগদ টাকা ও স্যানিটারির মূল্যবান মালামাল নিয়ে যায়। আমাদের এ ঘটনায় দোকানের মালিক দেলোয়ার নড়াইল থানায় একটি সাধারন ডাইরী করেছে। ঘটনার পরে এস আই খায়রুজ্জামান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এর আগে গত সেপ্টেম্বর মাসের ৯ তারিখে ভূইয়া শপিং মলে এক রাতে ১৫টি দোকানে, অক্টোবর মাসে মন্ডল মার্কেট, পুরাতন বাস টার্মিনালে, অভিলাস কমিনিটি সেন্টারেসহ প্রায় ২০টি দোকানে চুরি হয়েছে। একের পর এক চুরি হলেও এর কোন সমাধান হচ্ছে না। চুরির ভয়ে রূপগঞ্জ বাজারের দোকানীরা রাতে পাহারার ব্যবস্থা করেছে।

নড়াইল সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইলিয়াছ হোসেন (পিপিএ) ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে, আমাদের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায় জানান, রাতে পাহারার ব্যবস্থা না থাকার কারণে এভাবে চুরি হচ্ছে। পাহারার ব্যবস্থা করা হলে চুরি বন্ধ হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..