• শনিবার, ১১ এপ্রিল ২০২০, ১২:০৯ পূর্বাহ্ন

সৌদি আরবে অগ্নিকান্ডে কসবার যুবক মাহীনের মৃত্যু॥ বাড়িতে শোকের মাতম

  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ২৯ নভেম্বর, ২০১৯
  • ১৪৯

সুমন আহম্মেদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধিঃ

সৌদি আরবের দাম্মাম শহরে অগ্নিকান্ডে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার কসবা উপজেলার বাড়াই গ্রামের মাহীন আলম নামে এক যুবক মারা গেছেন। তিনি ওই গ্রামের লাল মিয়ার ছেলে। বাংলাদেশ সময় গত রোববার রাতে এসি বিস্ফোরণ থেকে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় তিনি মারা যান।

একই ঘটনায় নরসিংদী জেলার মনোহরদী উপজেলার উড়লিয়া গ্রামের মোঃ বোরহান উদ্দিন নামে আরো এক যুবক মারা যান। তাঁরা দুইজনই একসঙ্গে ঘুমিয়ে ছিলেন। গত বুধবার বিকেল পর্যন্ত তাদের লাশ দেশে আসে নি।

নিহত মাহীন আলমের চাচা কসবার মোঃ আবদুল্লাহ জানান, রাত্রিকালীন দায়িত্ব শেষে ওই দুইজন একসাথে ঘুমিয়ে ছিলেন। এরই মধ্যে বিদ্যুত থেকে আগুন লেগে দুইজন মারা যান। সহকর্মীরা ফোনে তাঁদেরকে এ খবরটি জানিয়েছেন। তিনি বলেন, প্রায় চার বছর ধরে মাহীন আলম সৌদি আরবে থাকেন।

এদিকে মাহীনের ফেসবুক স্ট্যাটাস ঘেঁটে দেখা যায়, তিনি কয়েকদিন ধরেই মৃত্যু নিয়ে নানা কিছু লিখেছিলেন। গত ৭ আগস্ট দেয়া এক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘আমিহীন দুনিয়া। এই সুন্দর পৃথিবী, এত সুন্দর মানুষগুলো ছেড়ে যে কোনো সময় চলে যেতে পারি মহান রবের কাছে। ভয়ও লাগে আশাও আছে। মরীচিকা পৃথিবী মিছে সব মায়া। কেউ কাউকে মনে রাখে না। মনে রাখে ততক্ষণ যতক্ষণ প্রয়োজন। গত ৭ অক্টোবর আরেকটি স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘যদি তকদিরে মৃত্যু লেখা না থাকে তাহলে খোদ মৃত্যুই জীবনকে নিরাপদ রাখবে। আর যদি ভাগ্যলিপিতে মৃত্যু লেখা থাকে জীবন দৌঁড়ে এসে মৃত্যুকে বুকে জড়িযে নিবে।

মাহীনের বড় ভাই মোঃ নাছির আহমেদ বুধবার দুপুরে সাংবাদিকদের জানান, মৃত্যুর আগের রাতেও মায়ের সাথে কথা বলেছে সে। আমার আরেক ভাই ও ছেলে সেখানে গিয়ে জানতে পেরেছে এসি বিস্ফোরণে তাঁরা মারা গেছে। আমাদের কাছ থেকে মঙ্গলবার কাগজপত্র নেয়া হয়েছে লাশ দেশে আনার জন্য।

এদিকে মাহীন আলম এর মৃত্যুর খবর পেয়ে মা সহ স্বজনেরা বার বার কান্নায় ভেঙ্গে পড়ছেন বলে জানান, মাহীনের বড় ভাই মোঃ নাছির আহমেদ।

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

%d bloggers like this: