• বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০৪:৫৪ পূর্বাহ্ন

লক্ষীপাশা মহিলা কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে পৌর আ’লীগ অফিসে অনুষ্ঠিত সভায় বিএনপি সমর্থিতদের নেতৃত্ব দেবার অভিযোগ!

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ৬৭ বার পঠিত

শরিফুল ইসলাম, নিজস্ব প্রতিবেদক নড়াইলঃ
নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলা সদরের লক্ষীপাশা আদর্শ মহিলা ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ তরফদার কামরুল ইসলামের স্বজনপ্রীতি, দুর্নীতি,ক্ষমতার অপব্যবহারের প্রতিবাদে এলাকাবাসীর উদ্যোগে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। পৌর আওয়ামী লীগ অফিসে অনুষ্ঠিত ওই সভায় বিএনপি সমর্থিতরা নেতৃত্ব দিয়েছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে।

শনিবার(২১ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় লোহাগড়া পৌর আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে কলেজের আজীবন দাতা সদস্য সৈয়দ মফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন লোহাগড়া সরকারি আদর্শ কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ কাজী ইবনে হাসান, আওয়ামী লীগ নেতা শেখ মনিরুজ্জামান বাচ্চু, সাবেক প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম, লক্ষীপাশা ইউপি চেয়ারম্যান কাজী বনি আমিন, নবগঙ্গা ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ মোল্যা মোশারফ হোসেন, প্রভাষক শেখ নজরুল ইসলাম, বি,এম লিয়াকত হোসেন, জহির ফকির, উপজেলা ছাত্রলীগের সম্পাদক এমএম রাশেদ প্রমুখ।

সভায় মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ কর্তৃক নির্যাতিত ও হয়রানির শিকার প্রভাষক শরিফুল ইসলাম, পিয়ন স্বপন ও হিসাব রক্ষক শ্যামল ঘোষ তাদের বক্তব্য উপস্থাপন করেন। মত বিনিময় সভায় এলাকার বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষজন উপস্থিত ছিলেন। সভায় বক্তারা, অধ্যক্ষর দুর্নীতির তদন্ত ও অপসারনের দাবী জানান।

তরফদার কামরুল ইসলাম কলেজের অধ্যক্ষ হিসাবে ২০০৬ সালে যোগদান করেন। এরপর থেকে তার বিরুদ্ধে নিয়োগ বাণিজ্য, ভর্তি বাণিজ্য, গাছ কর্তন, ভুয়া ভাউচারসহ নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে। এর আগে এলাকাবাসীর ব্যানারে অধ্যক্ষের দুর্নীতির প্রতিবাদে পোষ্টারিং, লিফলেট বিতরন, সভা-সমাবেশ, মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

অধ্যক্ষ তরফদার কামরুল ইসলাম সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমি কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সচিব মাত্র। আমার উপরে পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি সবসময়ই ছিলেন। বেশির ভাগ সময়ই নড়াইল-২ আসনের এমপি বা তার সমর্থিত কেউ সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্তমানে সভাপতি ডিসি স্যার। আমি দুর্নীতি-অনিয়ম করলে সভাপতির নেতৃত্বে পরিচালনা পর্ষদ অবশ্যই ব্যবস্থা নিতেন। তিনি আরো বলেন, বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত শিক্ষক নেতা প্রভাষক শরিফুল ইসলামের নেতৃত্বে আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। বিএনপির সাবেক নেতা প্রভাষক শরিফুল ইসলামই শনিবার পৌর আওয়ামী লীগ অফিসে সভা পরিচালনাসহ নেতৃত্ব দিয়েছেন। সভায় জেলা বিএনপির প্রভাবশালী নেতা শ,ম, লুৎফর রহমান সহ অনেক বিএনপি নেতা উপস্থিত ছিলেন। যেসব অধ্যক্ষ বা প্রধান শিক্ষক বা প্রভাষক আমার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ এনে বক্তব্য দিয়েছেন তারাও দুর্নীতির দায়ে এক সময় অভিযুক্ত ছিলেন।

উল্লেখ্য, লক্ষীপাশা আদর্শ মহিলা ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ ও কয়েকজন শিক্ষকের কর্মকান্ড নিয়ে সৃষ্টি জটিলতা নিরসনে ডিসির নেতৃত্বে ৭ সেপ্টেম্বর পরিচালনা পর্ষদের সভা অনুষ্ঠিত হয়। উদ্বুদ্ধ পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ায় এসভা করা হয়। পরবর্তীতে ১২ সেপ্টেম্বর পুনরায় পরিচালনা পর্ষদের সদস্যরা, ডিসির প্রতিনিধি ইউএনও কলেজের অধ্যক্ষ এবং শিক্ষকদের মধ্যকার সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করলেও জটিলতার সুরাহা হয়নি।

এ বিষয়ে, পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাডঃ সুবাস চন্দ্র বোস বলেন, আমরা সব কিছুই পর্যবেক্ষণ করছি। কেউই আইনের উর্দ্ধে নয়। যে অপরাধ করবে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..