• বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০৩:৪৩ পূর্বাহ্ন

ওষুধ ছাড়াই হাইপ্রেসার নিয়ন্ত্রণের সহজ কিছু টিপস

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ৬৩ বার পঠিত

কোনও ব্যক্তির রক্তের চাপ স্বাভাবিকের চেয়ে উপরে উঠে গেলে তখন তাকে উচ্চ রক্তচাপ বা হাইপ্রেসার বলা হয়। যারা উচ্চ রক্তচাপ জনিত রোগে ভুগেন তাদের অনেকেরই নিয়ম মেনে প্রতিদিন ওষুধ সেবন করতে হয়। আবার অনেক সময় কোনও ওষুধ ছাড়াই নিয়ন্ত্রণে রাখা যায় হাইপ্রেসার। একসময় তা কমেও আসে।

হাই ব্লাড প্রেশার বা উচ্চ রক্তচাপের লক্ষণসমূহ

বর্তমানে এমন কোন একটি বাসা পাওয়া যাবে না যেখানে কোন একজন হাইপারটেনশনের রোগী নেই। প্রেশার হুটহাট বেড়ে যেতে পারে। সবার সিম্পটম এক না তবুও কমন কিছু সিম্পটম হলঃ

১) প্রচণ্ড মাথা ব্যথা করা

২) ঘাড় ব্যথা করা

৩) বমি বমি ভাব হওয়া; এমনকি বমিও হয়ে যাওয়া।

৪) নাক দিয়ে রক্ত পড়তে পারে।

হাই ব্লাড প্রেশার বা উচ্চ রক্তচাপের কিছু কারণ

১) প্রতিদিন ৬ গ্রামের বেশি লবণ খাওয়া।

২) অ্যালকোহল গ্রহণ করা।

৩) প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় অনেক বেশি ক্যাফেইন জাতীয় খাদ্য /পানীয় থাকা।

৪) নিয়মিত ব্যায়ামের অভ্যাস গড়ে না তোলা।

৫) স্ট্রেস

৬) অবেসিটি, যেহেতু হার্টকে অতিরিক্ত টিস্যুর জন্য বেশি বেশি ব্লাড পাম্প করা লাগে।

৭) বংশগতভাবে অনেকের হাই ব্লাড প্রেশারের শিকার হয়ে থাকে।

 ওষুধ ছাড়া হাইপ্রেসার নিয়ন্ত্রণের  কিছু টিপসঃ

ওজন কমান: যাদের ওজন বেশি তাদের উচ্চ রক্তচাচ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। তাই উচ্চ রক্তচাপ কমাতে দ্রুত ওজন কমিয়ে ফেলুন।

নিয়মিত ব্যায়াম: নিয়মিত শারীরিক ব্যায়াম অথবা শারীরিক পরিশ্রম করলে রক্তচাপ স্বাভাবিক থাকে। তাই প্রতি প্রতিদিন অন্তত ৩০ মিনিট শারীরিক পরিশ্রম বা ব্যায়াম করুন।

স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণ: উচ্চ রক্তচাপ কমাতে চাইলে চর্বিযুক্ত খাবার এড়িয়ে চলুন। এছাড়া স্বাস্থ্যকর নানা খাবার গ্রহণ করুন।

লবণ কম খান: লবণ দ্রুত উচ্চ রক্তচাপ সৃষ্টি সহায়তা করে। তাই খাবারে লবণ কম খান। পাতে লবণ খাওয়ার অভ্যাস থাকলে এখনই পরিহার করুন। লবণ হার্টের জন্যও খুব ক্ষতিকর।

মদ্যপান ত্যাগ করুন: যাদের অ্যালকোহল পান করার অভ্যাস আছে তারা এখনই তা পরিত্যাগ করুন। পরিমিত অ্যালকোহল রক্তচাপ কমাতে সহায়তা করে। কিন্তু অ্যালকোহল যখন অতিরিক্ত পরিমাণে গ্রহণ করা হয়, তা রক্তচাপ অস্বাভাবিকভাবে বাড়িয়ে দেয়।

ধূমপান ত্যাগ করুন: প্রতিটি সিগারেট পরবর্তী কয়েক মিনিটের জন্য শরীরের রক্তপ্রবাহ অস্বাভাবিকভাবে বাড়িয়ে দেয়। অধিক ধূমপান রক্তচাপকে ঝুঁকিপূর্ণ পর্যায়ে নিয়ে যেতে পারে। ধূমপান এড়িয়ে চলুন। এতে হার্ট ও রক্তচাপসহ সার্বিক স্বাস্থ্য স্বাভাবিক থাকে।

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..