• শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:১১ অপরাহ্ন

ধোনিদের ছাড়িয়ে এখন মরগানই সেরা

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২ নভেম্বর, ২০২১
  • ৬৪

বাংলারজমিন২৪.কম ডেস্কঃ

আসগর আফগান ভাবতেই পারেন, অবসরের ঘোষণাটা একদম সময়মতোই নিয়েছেন। আফগানিস্তান দলের অধিনায়কত্ব অনেক আগেই হারিয়েছেন, নিকট ভবিষ্যতে কখনো আর অধিনায়কত্ব ফিরে পাবেন, সে আশাও ছিল না তাঁর। ফলে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ জেতার রেকর্ডটি আর বাড়িয়ে নেওয়া সম্ভব হচ্ছিল না তাঁর পক্ষে। তবে এটুকু সান্ত্বনা পেয়েছেন, অবসরের মুহূর্তে অন্তত সবচেয়ে বেশি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ জেতানো অধিনায়ক হিসেবেই বিদায় নিয়েছেন।

আসগর আফগান বিদায় নিয়েছেন ১ নভেম্বর আর তাঁর কাছ থেকে ২ নভেম্বর সে রেকর্ড কেড়ে নিয়েছেন এউইন মরগান। গতকাল শ্রীলঙ্কাকে ২৬ রানে হারিয়েছে ইংল্যান্ড। আর এ জয়ই আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে সবচেয়ে ম্যাচ জেতা অধিনায়ক বানিয়ে দিয়েছে মরগানকে।

গত পরশু রেকর্ডটা ভাগাভাগি করছিলেন তিনজন। সাবেক ভারতীয় অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি, সাবেক আফগান অধিনায়ক আসগর আফগান ও মরগান—তিনজনই ৪২টি ম্যাচে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। কিন্তু শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গতকাল ইংল্যান্ডের জয়ে রেকর্ডটা নিজের করে নিলেন ইংলিশ অধিনায়ক এউইন মরগান।

গত বছর হুট করেই অবসর নেওয়া ধোনি ভারতের হয়ে অধিনায়কত্ব করেছেন ৭২টি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে, এর মধ্যে জয় পেয়েছেন ৪২টি ম্যাচে। অন্যদিকে চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মাঝপথেই অবসর নেওয়া আসগরও অধিনায়ক হিসেবে ৪২ জয় তুলে নিয়েছিলেন। তবে আসগরের রেকর্ডটি একদিক থেকে ঈর্ষনীয়। ৪২টি জয় তিনি এনে দিয়েছেন ৫২টি ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়েই। আর গতকাল পর্যন্ত মরগান ইংল্যান্ডের হয়ে অধিনায়কত্ব করেছেন ৬৮টি-টোয়েন্টিতে। আর তাতে জয় তাঁর ৪৩টি।

এই রেকর্ডে অবশ্য একটি পাদটীকা যোগ না করলে চলছে না। নির্ধারিত ২০ ওভারে শেষ হওয়া ম্যাচের হিসেবে এখনো রেকর্ডটি আসগরের। তাঁর ৪২টি জয়ই ছিল নির্ধারিত ২০ ওভারে। ওদিকে ধোনির একটি জয় এসেছে বোল আউটে। আর মরগানের দুটি জয় এসেছে সুপার ওভারে। যেভাবে খেলছে ইংল্যান্ডে, তাতে নির্ধারিত ২০ ওভারের জয়ের রেকর্ডটিও মরগানের হয়ে যাবে। আর এ রেকর্ড যে তাঁর বহুদিন থাকবে, সেটাও নিশ্চিত। বর্তমানে অধিনায়কত্ব করছেন, এমন ক্রিকেটারদের মধ্যে তাঁর ধারেকাছে আছেন শুধু বিরাট কোহলি। কিন্তু ২৯ ম্যাচ জেতা কোহলি বিশ্বকাপের পরই দায়িত্ব থেকে সরে যাবেন। ফলে মরগানকে ধরার কোনো সম্ভাবনা তাঁর নেই। এরপর আছেন অ্যারন ফিঞ্চ (২৫) ও কেইন উইলিয়ামসন (২৪)।

এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে টানা চতুর্থ ম্যাচ জিতে নিয়েছে ইংল্যান্ড। ফলে সেমিফাইনালে নিজেদের জায়গা প্রায় নিশ্চিত করে নিয়েছে মরগানের দল। টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান জস বাটলারের অবিশ্বাস্য সেঞ্চুরিতে ভর করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৬৩ রান করে ইংল্যান্ড। ব্যাটিং এ নেমে খুব বেশি দূর এগোতে পারেনি শ্রীলঙ্কা, ১৯ ওভারেই ১৩৭ রানে অল আউট হয়ে যায় দাসুন শানাকার দল।

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে সন্তুষ্টি ঝরে পড়ল মরগানের কণ্ঠে, ‘আজকের ম্যাচের সবকিছুর জন্য আমি খুবই গর্বিত। মাঠে সবাই কঠোর পরিশ্রম করেছে। এখানকার কন্ডিশন একেক সময় একেক রকম হয়ে যায়। চোটের কারণে টাইমাল (মিলস) মাঠ ছেড়ে গেলে আমরা আরও চ্যালেঞ্জের মুখে পড়ি। কিন্তু লিয়াম (লিভিংস্টোন) এবং মঈন (আলী) দলের বিপদে এগিয়ে এসে অসাধারণ পারফরম্যান্স দেখিয়েছেন। আজকে আমাদের কারও খেলাতেই কোনো খুঁত ছিল না।’

অনেক দিন ধরে মরগান ব্যাট হাতে তেমন ভালো করতে পারছিলেন না। আইপিএলের আরব আমিরাত পর্বে তেমন রান পাননি। কিন্তু গতকাল ৩৬ বলে ৪০ রানের লড়াকু ইনিংস খেলে ফর্মে ফেরার ইঙ্গিত দিলেন, ‘আপনার নিজের ওপর সব সময় বিশ্বাস রাখতে হবে। আমি সব সময় রাখি। আজকের পরিস্থিতি আগের দিনগুলোর চেয়ে কঠিন হলেও আমরা সেটা উপভোগ করছিলাম। আমরা একটা পার্টনারশিপের মাধ্যমে লড়াই করার মতো একটা পুঁজি সংগ্রহ করতে চেয়েছিলাম।’

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..