• সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০১:০৫ অপরাহ্ন

সন্তানকে কোলে নিয়ে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিলেন মা

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১০ অক্টোবর, ২০২১
  • ১২

বাংলারজমিন২৪.কম ডেস্কঃ

পঞ্চগড়ে সন্তানকে কোলে নিয়ে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দেওয়া সেই নারী মারা গেছেন। শনিবার (৯ অক্টোবর) উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার সময় পথেই তার মৃত্যু হয়।ওই নারীর নাম লায়লা বেগম (২৪)। তার বাড়ি দেবীগঞ্জ উপজেলার সোনাহার এলাকায়।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, শনিবার (৯ অক্টোবর) দুপুরে পঞ্চগড় বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম রেলওয়ে স্টেশন সংলগ্ন ঘাটিয়াপাড়া এলাকায় ৩ মাস বয়সী মেয়েকে কোলে নিয়ে স্টেশনের পাশে মোবাইল ফোনে কথা বলছিলেন ওই গৃহবধূ। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে পঞ্চগড় এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যায়। এর ঠিক ৩ মিনিটের মাথায় সন্তানকে নিয়ে ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দেন ওই নারী।

এ সময় ট্রেনের গতি কম থাকায় ওই নারীকে ঝাঁপ দিতে দেখে ট্রেনটি থামিয়ে দেন চালক। এরপরও ধাক্কা খেয়ে গুরুতর আহত হন। কোলে থাকা শিশু রেল লাইনের ওপর ছিটকে পড়ে আহত হয়। পরে স্থানীয়রা আহত শিশুসহ মাকে উদ্ধার করে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

পঞ্চগড় সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ মিয়া ওই নারীর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। শনিবার রাত ১১টার দিকে তিনি সময় নিউজকে জানান, আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই নারীকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলে সেখানে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

এদিকে দেবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জামাল হোসেন জানান, ওই নারী তার শিশু সন্তানকে কোলে নিয়ে মোবাইল ফোনে কথা বলার সময় ট্রেনের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে গুরুতর আহত হন বলে জানতে পেরেছি। পরে স্থানীয়রা শিশুসহ তাকে উদ্ধার প্রথমে তাদের পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে যান। ওই নারীর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। পরে রংপুর নিয়ে যাওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। পরিবারের পক্ষ থেকেও কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..