• বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ১১:৩৩ পূর্বাহ্ন

ড্রামের ভেতরে মরদেহের পরিচয় মিলেছে

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৩৭

বাংলারজমিন২৪.কম ডেস্কঃ

রাজধানীর মিরপুর কলেজের পেছনে ড্রামের মধ্য থেকে উদ্ধার করা মরদেহের পরিচয় মিলেছে। হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, মৃত ওই যুবকের নাম জুয়েল রানা (২৯)। তিনি একটি সিগারেট কোম্পানির বিক্রয়কর্মী ছিলেন। গাবতলী এলাকায় থাকতেন ওই যুবক।

এ ঘটনায় শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) জাকির হোসেন নামের একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পুলিশের মিরপুর বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) আ স ম মাহতাব উদ্দিন সংবাদমাধ্যমকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) ভোরে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। তদন্তে ওই যুবকের পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পাশাপাশি হত্যার রহস্য উদঘাটিত হয়েছে। হত্যায় জাকিরের সঙ্গে আরও দুজন অংশ নেন। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তিনি বলেন, হত্যার কারণসহ বিস্তারিত তথ্য জিজ্ঞাসাবাদ শেষে জানানো হবে।

পুলিশ বলছে, মরদেহের শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) মিরপুর-২ এ অবস্থিত মন্দিরের পাশে রাস্তার ওপর ড্রামের ঢাকনা বন্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় ডাব বিক্রেতারা। পরে তারা পুলিশে খবর দেন। শুক্রবার সকালে পুলিশ এসে মরদেহ এবং ড্রাম উদ্ধার করে মিরপুর মডেল থানায় নিয়ে যায়।

স্থানীয় চায়ের দোকানদার মো. জাহিদ জানান, সকালে এসে মানুষের জটলা দেখতে পান তিনি। পরে, মানুষের মুখে শুনতে পান ড্রামের ভেতরে এক যুবকের মরদেহ ছিল। যার বয়স আনুমানিক ২২ বা ২৩ বছর হবে। তার পরনে ছিল জিন্স প্যান্ট আর সাদা রঙের টিশার্ট।

মিরপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিরুর রহমান জানিয়েছিলেন, অজ্ঞাতপরিচয়ের ওই যুবকের শরীরে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। গলায় রশির দাগ ছিল। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..