• মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:১৪ পূর্বাহ্ন

আবারও রক্তাক্ত মিয়ানমার, সামরিক বাহিনীর গুলিতে নিহত ২০

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ২৭

মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন নিহত হয়েছে যার অধিকাংশ কিশোর বলে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভি এবং ইরানের সংবাদ মাধ্যম পার্সটুডে।

মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন নিহত হয়েছে যার অধিকাংশ কিশোর বলে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভি এবং ইরানের সংবাদ মাধ্যম পার্সটুডে।

মিয়ানমারের সামরিক অভ্যুত্থান বিরোধী ন্যাশনাল ইউনিটি গভর্নমেন্ট বা এনইউজি ক্ষমতা দখলকারীদের বিরুদ্ধে গণ-প্রতিরক্ষা যুদ্ধের ঘোষণা দেওয়ার পর এটিই সবচেয়ে বড় সংঘর্ষের ঘটনা।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভি জানায়, ৯ সেপ্টেম্বর মায়ানমারের গ্যাংগাও শহরে হানা দেয় দেশটির সামরিক বাহিনী চারটি গাড়িতে প্রায় শতাধিক সেনা এখানে হাজির হওয়ার পরে তাদের সঙ্গে লড়াই শুরু হয় একটি মিলিশিয়া গ্রুপের সদস্যদের।

ওই গ্রুপের কাছে অস্ত্রশস্ত্র কম থাকলেও তারা গুলি চালিয়ে সেনাবাহিনীকে প্রতিহত করার চেষ্টা করেছিল। কিন্তু মায়ানমার সেনা এরপরও এলাকার ভিতরে প্রবেশ করে।

সংঘর্ষ আরও তীব্র হতে শুরু করে। জানা গিয়েছে, ওই বিদ্রোহীরা ছোট অস্ত্র ও ঘরে তৈরি বন্দুক নিয়েই লড়ায়ে নেমেছিল। শেষ পর্যন্ত সংঘর্ষে অন্তত ২০ জনের মৃত্যু হয়।

ওই এলাকার ৪২ বছর বয়সী একজন বাসিন্দা জানান, সামরিক বাহিনী গোলা ছুড়েছে, আমাদের গ্রামের অনেকগুলো বাড়ি পুড়ে গেছে। তার নিজের ১৭ বছরের সন্তানও নিহত হয়েছে বলে জানান তিনি।

এর আগে সামরিক অভ্যুত্থানে ক্ষমতাচ্যুত মিয়ানমার সরকারের সংসদ সদস্যদের নিয়ে এনইউজি’র ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট দুওয়া লাশি গত মঙ্গলবার ফেসবুকে পোস্ট করা ভিডিওবার্তায় সামরিক জান্তার বিরুদ্ধে গণ প্রতিরক্ষা যুদ্ধের ঘোষণা দেন।

এতে তিনি সামরিক বাহিনী ও সরকারের কর্মকর্তাদের এনইউজির পক্ষ নেওয়ার আহ্বান জানান।মিয়ানমারের জেনারেল মিন অং হ্লাইংয়ের নেতৃত্বে গত ১‌ ফেব্রুয়ারি সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে মায়ানমারের শাসনভার নিজের হাতে তুলে নেয় সেনাবাহিনী।

গণতান্ত্রিক সরকারকে সরিয়ে বন্দি করা হয় দেশটির কাউন্সিলর আং সাং সু কি ও অন্যান্য জনপ্রতিনিধিদের। এরপরেই গণতন্ত্র ফেরানোর ডাক দিয়ে বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে ওঠে দেশটি। এ পর্যন্ত দেশটিতে সেনার গুলিতে মৃত্যু হয়েছে শিশু নারীসহ কয়েক হাজার মানুষের।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..