• মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:১৫ পূর্বাহ্ন

তালেবানকে স্বীকৃতির ব্যাপারে টাইমস পত্রিকার খবর নিয়ে যা বলল পাকিস্তান

  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৩০ আগস্ট, ২০২১
  • ২০

বাংলারজমিন২৪.কম ডেস্কঃ

তালেবানকে স্বীকৃতির ব্যাপারে ব্রিটিশ পত্রিকা টাইমসের প্রতিবেদন নিয়ে নিজেদের অবস্থান তুলে ধরল পাকিস্তান। তালেবানকে স্বীকৃতি না দিলে ১১ সেপ্টেম্বরের ঘটনার পুনরাবৃত্তি হতে পারে- এই কথিত বক্তব্যকে অস্বীকার করেছেন পাকিস্তানের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা মুয়িদ ইউসুফ।

তিনি বলেছেন, ব্রিটিশ পত্রিকা টাইমস ইসলামাবাদের অবস্থান সম্পর্কে সম্পূর্ণ ভুল তথ্য উপস্থাপন করেছে।

ব্রিটিশ সাংবাদিক ক্রিস্টিনা ল্যাম্ব সম্প্রতি টাইমস পত্রিকায় পাকিস্তানের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টার সাক্ষাৎকারভিত্তিক একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেন। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, মুয়িদ ইউসুফ বলেছেন, আফগানিস্তানের ক্ষমতায় তালেবানকে স্বীকৃতি না দিলে ১৯৯০-এর দশকের ভয়াবহতা এবং ২০০১ সালের ১১ই সেপ্টেম্বরের হামলার পুনরাবৃত্তি হতে পারে।
রবিবার পাকিস্তানের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টার দফতর থেকে প্রকাশিত বিবৃতিতে টাইমস পত্রিকার ওই খবর তীব্র ভাষায় প্রত্যাখ্যান করা হয়। বিবৃতিতে বলা হয়, ব্রিটিশ পত্রিকাটির প্রতিবেদনে আফগানিস্তান সম্পর্কে পাকিস্তানের দৃষ্টিভঙ্গিকে সম্পূর্ণ উল্টো করে তুলে ধরা হয়েছে। এতে অবিলম্বে মুয়িদ ইউসুফের গোটা সাক্ষাৎকারটি প্রকাশ করে এ সম্পর্কে সৃষ্ট ভুল বোঝাবুঝির অবসান ঘটানোর আহ্বান জানানো হয়েছে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, সাক্ষাৎকারে পাকিস্তানের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা একবারও তালেবানকে দ্রুত স্বীকৃতি দেওয়ার আহ্বান জানাননি এবং ১১ সেপ্টেম্বরের হামলার পুনরাবৃত্তি হতে পারে বলেও মন্তব্য করেননি। কিন্তু ব্রিটিশ সাংবাদিক তার প্রতিবেদন এমনভাবে উপস্থাপন করেছেন যাতে আফগানিস্তান সম্পর্কে পাঠক পাকিস্তানের দৃষ্টিভঙ্গি সম্পর্কে উল্টো ধারণা করতে বাধ্য হয়।

পাকিস্তানের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টার দপ্তর থেকে প্রকাশিত বিবৃতিতে ওই প্রতিবেদন সম্পর্কে ভুল স্বীকার করে লন্ডনস্থ পাকিস্তান দূতাবাসের পক্ষ থেকে এ সম্পর্কে যে প্রতিবাদলিপি দেওয়া হয়েছে তা প্রকাশ করার জন্য টাইমস পত্রিকার প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

পাকিস্তানের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা এর আগে সম্প্রতি মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্টকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, আফগানিস্তানের বর্তমান পরিস্থিতির জন্য পাকিস্তানকে দায়ী করা সম্পূর্ণ ভুল। তিনি আরও বলেছিলেন, ১৯৯০-এর দশকের ভুলগুলোর পুনরাবৃত্তি করা হলে সেসব ভুলের পরিণতিও একই রকম হবে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..