• মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:২৯ পূর্বাহ্ন

জিয়ার সমাধি নিয়ে উত্তপ্ত রাজনীতি

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২৮ আগস্ট, ২০২১
  • ২৪

বাংলারজমিন২৪.কম ডেস্কঃ

বিএনপি প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের সমাধি নিয়ে কয়েক দিন ধরেই সরগরম দেশের রাজনীতি। কবরে লাশ থাকা না থাকা নিয়ে পাল্টাপাল্টি বক্তব্য দিচ্ছেন আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতারা।
জিয়ার সমাধি নিয়ে সরগরম দেশের রাজনীতি, চলছে পাল্টাপাল্টি বক্তব্য

শনিবার (২৮ আগস্ট) আজও দু’দলের শীর্ষ পর্যায়ের নেতা জিয়াউর রহমানের কবর ও জানাজা ইস্যুতে পাল্টাপাল্টি বক্তব্য দিয়েছেন। এ ছাড়া আলাদা অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী জানান, সংসদ ভবনের চারপাশ থেকে নকশাবহির্ভূত সব স্থাপনা সরিয়ে নেওয়া হবে।

বেশকিছু দিন ধরে আলোচনায় বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবর। সংসদ ভবনের মূল নকশা অনুযায়ী এর চারপাশে থেকে নকশাবহির্ভূত সব অবকাঠামো সরিয়ে নেওয়ার দাবি উঠে বিভিন্ন মহল থেকে। সে ক্ষেত্রে চন্দ্রিমা উদ্যান থেকে সরিয়ে নিতে হবে জিয়াউর রহমানের কবরও।

সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শোক দিবসের আলোচনায় বিষয়টি নিয়ে আবারও কথা বললে গতি পায় এ আলোচনা। তবে এ নিয়ে আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া জানাতে বিএনপির পক্ষ থেকে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলেনে দাবি করা হয়, জানাজায় হাজারো মানুষের উপস্থিতি প্রমাণ করে জিয়ার লাশ দাফন করা হয়েছে চন্দ্রিমা উদ্যানে।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, এটা আমার কাছে মনে হয়েছে রুচিহীন, কদর্য মিথ্যাচার ছাড়া আর কিছু নয়। জিয়ার মরদেহ দাফন হয়েছে লাখ লাখ মানুষ সেখানে শরিক হয়েছেন। তৎকালীন সেবাপ্রধান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ তার মরদেহ কাঁধে করে বহন করেছেন, এটা স্বচ্ছ কাচের মতো পরিষ্কার। এর চেয়ে বড় সত্য আর হতে পারে না। সেখানে এ ধরনের ইস্যুগুলোকে নিয়ে আসা, তারা যে কতটা রাজনীতিশূন্য হয়ে গেছেন, দেউলিয়া হয়ে গেছেন রাজনীতিতে এটিই তার প্রমাণ।

তবে এ দাবি মানতে নারাজ আওয়ামী লীগ। পাল্টা প্র্রতিক্রিয়ায় তারা জানায়, সেদিন কফিনে জিয়াউর রহমানের লাশ ছিল না।
আরো পড়ুন: জিয়ার লাশের ছবি দেখতে চাইলেন কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, হাজার হাজার লোক জানাজা পড়া আর কফিনে ‍জিয়িউর রহমানের লাশ থাকা না থাকা এটি কি এক কথা। মানুষ তো নিহত প্রেসিডেন্টের জন্য জানাজা পড়েছে। সেই কফিনে যে প্রেসিডেন্টর মরদেহ নেই এটা তো মানুষ জানত না।

আলাদা এক অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক জানান, দীর্ঘদিনের দাবি অনুযায়ী শুধু জিয়ার কবর নয়, সংসদ ভবনের আশপাশ থেকে নকশাবহির্ভূত সব কাঠামোই সরিয়ে নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, জিয়াউর রহমানের খুনিরা যারা, জিয়াকে যারা হত্যা করেছে তারা সেই সময় দাবি করেছিলেন লাশ পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। আমি আরেকবার বলি তার হত্যার সঙ্গে আমি একমত নই। তাহলে কী এনে দিলেন, বিএনপির উদ্দেশে মন্ত্রী এমন প্রশ্ন রাখেন। বলেন, দেখান তাহলে শরীর। আমি সংসদে বলেছি, ডিএনএ টেস্ট করার জন্য। কী দিয়েছেন আর না দিয়েছেন আল্লাহ জানেন, আর যারা দিয়েছেন তারা জানেন। আমরা চ্যালেঞ্জ করি, সেখানে জিয়ার লাশ নেই।

এর মধ্যে সংসদ ভবন নিয়ে লুই আই কানের পূর্ণাঙ্গ নকশা ঢাকায় আনা হয়েছে। বর্তমানে সংসদ সচিবালয়ে এটি রক্ষিত আছে। পর্যালোচনা করে কাজ শুরু করা হবে বলে জানা গেছে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..