• মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:০৮ পূর্বাহ্ন

হামলার ‘পরিকল্পনাকারীকে’ হত্যা করেছে মার্কিন বাহিনী

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২৮ আগস্ট, ২০২১
  • ২৮

বাংলারজমিন২৪.কম ডেস্কঃ

আফগানিস্তানের পূর্বাঞ্চলে ইসলামিক স্টেট (আইএস) গোষ্ঠীকে লক্ষ্য করে ড্রোন হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। হামলায় এখন পর্যন্ত একজন আইএস সদস্য নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। শনিবার (২৮ আগস্ট) ভোরে এ হামলা চালানো হয়।

মার্কিন সেনাবাহিনী জানায়, পূর্ব আফগানিস্তানে ড্রোন হামলা চালিয়ে ইসলামিক স্টেট জিহাদী গোষ্ঠীর একটি শাখার একজন পরিকল্পনাকারীকে হত্যা করতে সক্ষম হয়েছে।

নানগারহার প্রদেশে অবস্থানরত আইএসকে গ্রুপের একজন ‘পরিকল্পনাকারীকে’ লক্ষ্য করে ছিল এই অভিযানটি।
এর আগে আইএসকে কাবুল বিমানবন্দরে বৃহস্পতিবার আত্মঘাতী হামলা চালায় যেখানে ১৭০ জন মানুষ নিহত হয়। এদের মধ্যে ১৩ জন আমেরিকান সৈনিকও ছিল।
যুক্তরাষ্ট্র বলছে, নানগাহারে যে ব্যক্তিকে লক্ষ্য করে ড্রোন হামলাটি চালানো হয়েছে, তার মৃত্যু হয়েছে। এ হামলায় কোন বেসামরিক ব্যক্তি নিহত হয়নি বলেও যুক্তরাষ্ট্র জানাচ্ছে।

তালেবান এ মাসের গোড়ার দিকে আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নেবার পর থেকে কাবুল বিমানবন্দর দিয়ে গণ-উদ্ধার তৎপরতা চলছে।

যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তানে উদ্ধার তৎপরতা সমাপ্তির যে সময়সীমা বেঁধে দিয়েছে তা শেষ হচ্ছে আগামী মঙ্গলবার। এরই মধ্যে গত দু সপ্তাহে সেখান থেকে ১০ হাজারের বেশি মানুষ উদ্ধার করা হয়েছে বলে ধারণা রয়েছে।
বৃহস্পতিবার (২৭ আগস্ট) সন্ধ্যায় বিকট শব্দে কেঁপে ওঠে কাবুল বিমানবন্দর। ভয়াবহ ওই বিস্ফোরণে প্রাণ হারান মার্কিন সেনা ও বেসামরিক আফগানরা।

হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের বাইরের হামলার দায় স্বীকার করে বিবৃতি দিয়েছে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস। গোষ্ঠীটির দাবি, মার্কিন সেনা ও তাদের সহযোগীদের লক্ষ্য করেই আত্মঘাতী হামলা চালানো হয়েছে।

কাবুল বিমানবন্দরে হামলার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংগঠন থেকে শুরু করে বিভিন্ন দেশের নেতারা। নারকীয় এই হামলা সত্ত্বেও আফগানিস্তান থেকে নিজেদের নাগরিকদের নিরাপদে সরিয়ে আনা অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে ফ্রান্স, যুক্তরাজ্যসহ পশ্চিমা দেশগুলো।

জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেল বলেন, নিরীহ মানুষকে লক্ষ্য করে সন্ত্রাসীরা যে হামলা চালিয়েছে, তার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। এ অবস্থায় সেখানে যারা আছেন, তাদের নিরাপদে সরিয়ে আনতে হবে।

আর ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেন, কাবুলের পরিস্থিতি ভালো না। হামলার পর সবার মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। তবে সময় শেষ হওয়ার আগেই নাগরিকদের সেখান থেকে নিয়ে আসব।

এদিকে নিজেদের ২৮ সদস্য নিহতের খবর জানিয়ে এই হামলাকে সন্ত্রাসবাদী আখ্যা দিয়ে নিন্দা জানিয়েছে তালেবান। এর আগে বৃহস্পতিবার বিমানবন্দর এলাকায় জঙ্গি হামলার আশঙ্কার কথা জানায় যুক্তরাষ্ট্র। এতে সকাল থেকেই নিরাপত্তার কড়াকড়ির কারণে ব্যাহত হয় শরণার্থীদের সরিয়ে নেওয়ার প্রক্রিয়া।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..