• মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:১৬ পূর্বাহ্ন

হল খোলার পরিকল্পনায় ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে শিক্ষার্থীদের টিকা নেওয়ার আহ্বান

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২৫ আগস্ট, ২০২১
  • ৪৮

বাংলারজমিন২৪.কম ডেস্কঃ

হল খোলার বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত হয়। যেসব শিক্ষার্থী এখনো করোনার টিকা পাননি, ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে তাঁদের টিকা নেওয়ার আহ্বান জানানো হবে। ই-মেইল, এসএমএস ও বিভাগের মাধ্যমে বিষয়টি অবহিত করা হবে। প্রথমে স্নাতক শেষ বর্ষ ও স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থীদের আমরা হলে নিয়ে আসব। তাঁদের পরীক্ষা কার্যক্রমগুলো দ্রুত শেষ করা হবে। ১৫ নভেম্বরের মধ্যে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীদের হলে নিয়ে আসা হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য এ এস এম মাকসুদ কামাল

স্নাতক চতুর্থ বর্ষ ও স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থীদের জন্য আগামী ১৫ সেপ্টেম্বরের পর আবাসিক হল খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভোস্ট স্ট্যান্ডিং কমিটি। অক্টোবরের দিকে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার পরিকল্পনা থাকলেও সুনির্দিষ্ট কোনো তারিখ ঘোষণা করেনি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। প্রভোস্ট স্ট্যান্ডিং কমিটির আজ বুধবার সকালে অনুষ্ঠিত সভায় অনুমোদন দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনস কমিটি।

সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে স্নাতক চতুর্থ বর্ষ ও স্নাতকোত্তরের শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হবে। শিক্ষার্থীদের করোনার টিকা নেওয়ার অগ্রগতি ও করোনার সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা হবে। এর জন্য ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে শিক্ষার্থীদের করোনার টিকা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

আজ ডিনস কমিটির সভা শেষে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর জানায়, অক্টোবর থেকে হলগুলো সীমিত পরিসরে খোলার পরিকল্পনা রয়েছে। তাই যেসব শিক্ষার্থী এখনো টিকার আওতায় আসেননি, তাঁদের ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে টিকা কার্যক্রমের আওতায় এসে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি সেলের মাধ্যমে কর্তৃপক্ষকে অবহিত করার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। সব শিক্ষার্থী টিকার আওতায় না এলে হল খোলা এবং সশরীর ক্লাস ও পরীক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার পরিকল্পনা ব্যাহত হবে। তবে অনলাইন ক্লাস ও পরীক্ষা কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

গতকাল মঙ্গলবার প্রভোস্ট স্ট্যান্ডিং কমিটির সভা শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য এ এস এম মাকসুদ কামাল বলেন, ‘হল খোলার বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত হয়। যেসব শিক্ষার্থী এখনো করোনার টিকা পাননি, ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে তাঁদের টিকা নেওয়ার আহ্বান জানানো হবে। ই-মেইল, এসএমএস ও বিভাগের মাধ্যমে বিষয়টি অবহিত করা হবে। প্রথমে স্নাতক শেষ বর্ষ ও স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থীদের আমরা হলে নিয়ে আসব। তাঁদের পরীক্ষা কার্যক্রমগুলো দ্রুত শেষ করা হবে। ১৫ নভেম্বরের মধ্যে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীদের হলে নিয়ে আসা হবে। স্নাতক শেষ বর্ষ ও স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থীরা হলে আসার পর যদি আমরা প্রস্তুতির কোনো ঘাটতি বুঝতে পারি, সব শিক্ষার্থী হলে আসার আগে তা সমাধান করা হবে।’

মাকসুদ কামাল বলেন, ‘এসব সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে দুটি বিষয় বিবেচনায় থাকবে। এগুলো হলো শিক্ষার্থীদের টিকা নেওয়া ও করোনা পরিস্থিতি। করোনা পরিস্থিতির অবনতি হলে এবং নতুন কোনো জাতীয় সিদ্ধান্ত হলে, ভিন্ন কথা। বর্তমানে যে পরিস্থিতি বিরাজ করছে, এর আলোকে সিদ্ধান্তটি গ্রহণ করা হয়েছে। জাতীয়ভাবে অন্য কোনো সিদ্ধান্ত হলে অতিমারির সময়ে আমাদের তা অনুসরণ করতেই হবে।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ও প্রভোস্ট স্ট্যান্ডিং কমিটির সদস্যসচিব এ কে এম গোলাম রব্বানী প্রথম আলোকে বলেন, ‘যেসব সিদ্ধান্ত হয়েছে, তা বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের করোনা টিকা নেওয়ার অগ্রগতি ও করোনার সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় নেওয়া হবে। ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সব শিক্ষার্থীকে করোনার টিকা নিতে বলা হয়েছে।

এর অগ্রগতি সাপেক্ষে আমরা হল খোলার তারিখ ঘোষণা করব। টিকার অগ্রগতি সন্তোষজনক ও করোনা পরিস্থিতি নিম্নগামী হওয়া সাপেক্ষে ১৫ সেপ্টেম্বরের পরই হলগুলো খুলে দেওয়া হবে আর অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে স্নাতক শেষ বর্ষ ও স্নাতকোত্তরের শ্রেণি ও পরীক্ষা কার্যক্রম শুরু হবে। পরীক্ষা শেষে তাঁরা (স্নাতক ও স্নাতকোত্তর) চলে যাওয়ার পর মধ্য নভেম্বরে প্রথম বর্ষ থেকে তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীদের হলে উঠিয়ে সরাসরি পরীক্ষা ও শ্রেণি কার্যক্রমে যুক্ত করা হবে।’

করোনা পরিস্থিতির কারণে গত বছরের মার্চ থেকে বন্ধ আছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রম, বন্ধ আছে আবাসিক হলগুলোও। এর মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু বিভাগ-ইনস্টিটিউটে অনলাইনে চূড়ান্ত পরীক্ষা হলেও বেশির ভাগ বিভাগে চূড়ান্ত পরীক্ষা আটকে আছে। চূড়ান্ত পরীক্ষা না হওয়ায় বিশেষ করে স্নাতক ও স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থীদের চাকরি বা কর্মজীবনে প্রবেশের প্রক্রিয়া মন্থর হয়ে আছে। গত কয়েক মাসে শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে অনেকবার হল ও ক্যাম্পাস খুলে দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..