• বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:১৭ অপরাহ্ন

জেনে নিন বিশেষ সাতটি চুম্বনের কথা ।

  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ২০ আগস্ট, ২০২১
  • ৪১১

বাংলারজমিন২৪.কম ডেস্কঃ

কাম বা কামবাসনা সম্পর্কিত বই বলতে আমরা সাধারণত মহর্ষি বাৎস্যায়ন রচিত ‘কামসূত্র’ গ্রন্থের কথাই বলে থাকি। তবে আপনি জেনে অবাক হবেন যে, কামশাস্ত্রের প্রকৃত প্রবর্তক বাৎস্যায়ন নন, তিনি হলেন ভগবান শিবের বাহন নন্দী ষাঁড়। কিন্তু মহর্ষি বাৎস্যায়ন রচিত ‘কামসূত্র’ গ্রন্থটি জগৎ বিখ্যাত। প্রাচীন যুগ থেকে আজ পর্যন্ত নারী-পুরুষের মিলন সম্পর্কিত যত গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে, সেগুলির মধ্যে কামসূত্র সবচেয়ে জনপ্রিয়। ‘কাম’ শব্দের অর্থ ইন্দ্রিয়সুখ বা যৌন আনন্দ, অপরদিকে ‘সূত্র’ শব্দের আক্ষরিক অর্থ সুতো বা যা একাধিক বস্তুকে সূত্রবদ্ধ রাখে।

শারীরিক বা যৌন মিলনের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ হল চুম্বন। সাধারণত চুম্বনের মাধ্যমেই শারীরিক মিলন শুরু হয়ে থাকে অর্থাৎ চুম্বনই হল শারীরিক মিলনের প্রথম ধাপ। তবে চুম্বন মানেই যে সেটা যৌন অনুভূতিসম্পন্ন হবে, সেটা কিন্তু একেবারেই নয়। যৌনতার বিষয়ে ভারতীয় কামশাস্ত্রে বিস্তারিত আলোচনা রয়েছে। এর মধ্যে চুম্বন একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কামশাস্ত্রে সাতরকম চুম্বনের কথা বর্ণিত করেছেন বাৎস্যায়ন। দেখে নিন সেগুলি –

১) প্রতিচ্ছবিতে চুম্বন
আপনি যদি ভেবে থাকেন যে শুধুমাত্র শারীরিক স্পর্শেই চুম্বন হয়, তা কিন্তু একেবারেই নয়। অনেক সময় মানুষ জলে, আয়নায় অথবা দেওয়ালে তার ভালবাসার মানুষের প্রতিচ্ছবিতে চুম্বন করে। এই ধরনের চুম্বন গভীর ভালবাসার পরিচায়ক, আর এই চুম্বনকে কামশাস্ত্রে বলা হয়েছে ছায়া চুম্বন।

২) মনোযোগ ফেরাতে চুম্বন
কামশাস্ত্রে আরও এক ধরনের চুম্বনের কথা বলা হয়েছে, যাকে সাধারণত মনোমালিন্য দূর করার অস্ত্র হিসেবে প্রয়োগ করে থাকে নারীরা। এছাড়াও, পুরুষসঙ্গী যখন কোনও কাজে ব্যস্ত বা অন্যমনস্ক থাকে, তখন তার মনোযোগ ফেরাতেও কাজে দেয় ‘চিত্তচাঞ্চল্যকর’ এই চুম্বন।

৩) গভীর চুম্বন
গভীর চুম্বনের আর এক ধরন বর্ণিত হয়েছে কামশাস্ত্রে। যখন চুম্বনের মাধ্যমে পুরুষ তার সঙ্গিনীর ঠোঁটটি সম্পূর্ণ গ্রাস করে, অত্যন্ত ঘনিষ্ট মিলনে এটা স্বাভাবিক। ইংরাজির ভাষায় একে বলা হয় ‘এনভেলপিং কিস’।

৪) নিমিত্তক চুম্বন
নিমিত্তক চুম্বন হল সেই চুম্বন যার মাধ্যমে কোনও নারী তার পুরুষ সঙ্গীকে বোঝাতে চায় যে তাকে কাছে পেতে সে কতটা ইচ্ছুক।

৫) প্রিয় মানুষের ছবি বা মূর্তিতে চুম্বন
আর এক ধরনের চুম্বনের কথা কামশাস্ত্রে পাওয়া গেছে, যাকে অনেকটা বিরহী বা বিরহিনীর চুম্বন বলা যায়। প্রিয় মানুষের ছবি বা মূর্তিতে চুম্বন করা হল সংক্রান্তক চুম্বন।

৬) উপরের ঠোঁট আকর্ষণ
গাঢ় চুম্বনের সময় কখনও উপরের ঠোঁট প্রাধান্য পায় আবার কখনও নীচের ঠোঁট। যখন উপরের ঠোঁট আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকে, তখন সেটিকে বাৎস্যায়ন বলেছেন উত্তর চুম্বিতক।

৭) অবচেতন থেকে চেতনা ফেরানোর চুম্বন
ভালবাসার মানুষটিকে ঘুম থেকে তোলার জন্য যে চুম্বন করা হয়, সেই চুম্বনকে কামশাস্ত্রে বলা হয় চৈতক চুম্বন অর্থাৎ যে চুম্বনের মধ্য দিয়ে মানুষের চেতনা ফেরে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..