• মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৪৪ পূর্বাহ্ন

ত্বকের যত্নে ব্যবহার করুন পুদিনা পাতা, জেনে নিন এর কয়েকটি আশ্চর্য উপকারিতা!

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৮ আগস্ট, ২০২১
  • ৫২

বাংলারজমিন২৪.কম ডেস্কঃ

পুদিনার স্বাস্থ্যের পক্ষে কতটা উপকারি, তা আমরা অনেকেই জানি। তবে আপনি কি জানেন, স্বাস্থ্যের পাশাপাশি পুদিনা ত্বকের জন্যও দুর্দান্ত! পুদিনা পাতা পুষ্টিগুণে ভরপুর, যা ত্বক সুস্থ রাখতে কার্যকরি। পুদিনা পাতার শক্তিশালী অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্য, ক্লিনজার, টোনার এবং ময়েশ্চারাইজার হিসেবে কাজ করে।

মশার কামড় থেকে শুরু করে ডার্ক সার্কেল, ব্রণ এবং ত্বকের নানান সমস্যা সমাধানে পুদিনা বা মিন্ট খুবই কাজের। তাই আপনার স্কিন কেয়ার রুটিনে পুদিন অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন। দেখে নিন এর বিভিন্ন উপকারিতা। ডার্ক সার্কেল কমায় পুদিনা পাতায় থাকা অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট
চোখের নীচের কালো দাগ কমাতে পারে।

চোখের তলার ডার্ক সার্কেলে পুদিনা পাতার পেস্ট লাগিয়ে সারারাত রেখে দিন। এতে ডার্ক সার্কেল ধীরে ধীরে হালকা হবে। ক্ষত সারায় পুদিনা পাতায় থাকা অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি বৈশিষ্ট্য ত্বকের কাটা, ক্ষত, মশার কামড় এবং চুলকানি নিরাময়ে সহায়তা করে। এর জন্য, পুদিনা পাতার রস বের করে ত্বকের আক্রান্ত স্থানে লাগাতে হবে। এতে ক্ষত নিরাময় হবে এবং ত্বকের জ্বালাপোড়াও প্রশমিত করবে।

ত্বকের বর্ণ উজ্জ্বল হবে পুদিনা পাতায় অ্যান্টি-সেপটিক বৈশিষ্ট্য বর্তমান, যা দূষণের সংস্পর্শে থাকা সত্ত্বেও ত্বকে দাগ ও ব়্যাশ হতে বাধা দেয়। সূর্যের আলোতে ত্বকের ক্ষতিও হ্রাস করে পুদিনা। ত্বকে পুদিনা পাতার নির্যাস প্রয়োগ করুন এবং ভাল ফলাফলের জন্য মাসে একবার এই প্রক্রিয়াটি পুনরাবৃত্তি করুন।

আরও পড়ুন :কেবল চুলের জন্যই নয়, পেঁয়াজের রস ত্বকের জন্যও দারুণ উপকারি, জানুন কীভাবে ব্যবহার করবেন ত্বককে কোমল এবং হাইড্রেট রাখে পুদিনা পাতা মাইল্ড অ্যাস্ট্রিঞ্জেন্ট হিসেবে কাজ করতে পারে, যা ত্বককে প্রাকৃতিকভাবে টোন করতে সাহায্য করে। এটি ছিদ্র থেকে ময়লা অপসারণ করে এবং ত্বককে কোমল ও হাইড্রেট রাখে। এটি ত্বকের রক্ত সঞ্চালন উন্নত করতেও কার্যকরি। রিঙ্কেলস ও ফাইন লাইনসও প্রতিরোধ করে। মুখে পুদিনা পাতার প্যাক লাগান এবং ২০ মিনিট রেখে পরিষ্কার ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। রেজাল্ট মিলবে হাতেনাতে!

ব্রণ কমায় পুদিনা পাতা স্যালিসিলিক অ্যাসিড এবং ভিটামিন এ সমৃদ্ধ, যা ত্বকে সিবাম অয়েল নিঃসরণ নিয়ন্ত্রণ করে। যাদের তৈলাক্ত ত্বক, তাদের ব্রণ ফেটে যাওয়ার প্রবণতা বেশি থাকে। পুদিনা পাতার অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি-ফাঙ্গাল বৈশিষ্ট্য প্রদাহ রোধ করে এবং ব্রণও নিরাময় করে। পুদিনা পাতার পেস্ট ব্রণের উপর লাগান এবং শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত রেখে দিন। এতে ব্রণের দাগ দূর হবে এবং ত্বকের ছিদ্রও পরিষ্কার করবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..