• বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৩৭ অপরাহ্ন

সুন্দর থাকুক ত্বক ও চুল

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৩ জুলাই, ২০২১
  • ১৩৭

বাংলারজমিন২৪.কম ডেস্কঃ

ঝরঝরে চুল আর লাবণ্যময় ত্বকের জন্য প্রাচীনকাল থেকেই প্রচলিত আছে রূপচর্চার নানান উপায়। প্রাচীনকালে রূপচর্চার প্রধান উপকরণ ছিল জলপাই তেল, খড়িমাটি, ফুল ও পাতার নির্যাস, সামুদ্রিক লবণ, ফলের রস, সুগন্ধি, মধু, তেল ও জাফরান ছাড়াও অনেক ধরনের প্রাকৃতিক উপাদান।

সৌন্দর্যচর্চার আদর্শ মানদণ্ড হিসেবে আজও মানা হয় মিসরীয় রানি ক্লিওপেট্রাকে। ইতিহাস বলে, ত্বকে তারুণ্য ধরে রাখতে দুধ আর জাফরানে গোসল, ত্বকে মধু, ফুল আর মসলার তেল, সামুদ্রিক লবণে স্ক্রাব করতেন তিনি। আর চুলের যত্নের জন্য তখন প্রচলিত ছিল বিভিন্ন রকম ঔষধি উপাদান ও প্রাকৃতিক তেল।

এরই ধারাবাহিকতায় এখন রূপচর্চা অনেক বেশি আধুনিক। তবে ঘরে বসে প্রাকৃতিক উপাদানে রূপচর্চার কদর আজও সমান। তবে এখন রূপচর্চার ধরনে এসেছে অনেক পরিবর্তন। কর্মব্যস্ততায় হাতে সময় এখন অনেক কম। তবে ঈদের সময় তো বিশেষ তাই ঝলমলে চুল ও সতেজ-স্নিগ্ধ ত্বকের জন্য একটু আয়োজন হতেই পারে।কোরবানির ঈদের ব্যস্ততা একটু বেশিই হয়। মাংস কাটা, লম্বা সময় চুলার কাছে থেকে রান্না আর ঘর পরিষ্কার। চুল আর ত্বকের ওপর যার প্রভাব পড়বেই। তাই কয়েক দিন আগে থেকেই যত্ন নিতে শুরু করলে ত্বক ও চুল পাবে বাড়তি সুরক্ষা। এতে করে ঈদের দিনের এত এত ঝামেলার পর সামান্য যত্নই যথেষ্ট হবে। ঈদের আগের ও পরের চুল ও ত্বকের যত্নে তাই একেবারেই হেলাফেলা নয়—পরামর্শ হারমনি স্পার আয়ুর্বেদিক রূপবিশেষজ্ঞ রাহিমা সুলতানার।

সুন্দর থাকুক ত্বক ও চুল
ত্বকের যত্ন ঈদের আগে-পরে

ঈদের আগে ত্বকের যত্ন শুরু করলে দরকার এমন একটি প্যাক, যা কয়েক দিন ধরেই ব্যবহার করা যাবে। আয়ুর্বেদিক রূপবিশেষজ্ঞ রাহিমা সুলতানা দিলেন এমনই একটি সমাধান। চার ভাগের এক ভাগ চাল, তরল দুধ ২ কাপ ও ১ চা–চামচ হলুদগুঁড়া একসঙ্গে রান্না করে ব্লেন্ডারে দিয়ে ঘন মিশ্রণ তৈরি করতে হবে। এই প্যাক মুখে দিলে ত্বকের মলিন ভাব কমবে এবং চুলার কাছে লম্বা সময় থাকার প্রভাবও দূর হবে। একবার তৈরি করে এক সপ্তাহ এটি ব্যবহার করা যাবে। ঈদের কয়েক দিন আগে থেকেই এই প্যাক ব্যবহার করা যাবে।

১ টেবিল চামচ টমেটোর রসের সঙ্গে আধা চামচ বেসন দিয়ে মুখে ব্যবহারে মুখ পরিষ্কার ও ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ে।

১ চা–চামচ টকদই ও আধা চা–চামচ মধু মিশিয়ে ত্বকে ব্যবহার করলে ত্বক নরম ও কোমল হবে।

কোরবানির ঈদের বড় একটা অংশ হলো কাঁচা মাংস। সকাল সকালই শুরু হয়ে যায় কাটা, বাছা ও রান্নার কাজ। আর মাংসের তেল ও গন্ধের প্রভাব পড়ে ত্বকে। যার কারণে ত্বকে অস্বস্তিও লাগে। তাই ফেসওয়াশের পাশাপাশি দরকার একটু বাড়তি ঘরোয়া কিছু। ১ চামচ চিনি ও আধা চামচ লেবুর রস নিয়ে মুখে স্ক্রাব করতে পারেন। এতে ত্বকে তেলের ভাব ও কাঁচা মাংসের গন্ধ কমবে আসবে মিষ্টি একটা ঘ্রাণ। ত্বকের মরা চামড়া দূর ও উজ্জ্বলতা বাড়াতেও বেশ দরকারি একটি ত্বক চর্চা এটি।

সুন্দর থাকুক ত্বক ও চুল
চুলের যত্নে

ঝলমলে রেশমি চুলের জন্য এক কাপ টকদই, ১ চামচ আমলকী গুঁড়া, ১টি ডিম, ২ টেবিল চামচ অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে ৩০ মিনিট চুলে রেখে ধুয়ে ফেলতে হবে। চটজলদি চুলে উজ্জ্বলতা আনতে অ্যালোভেরা খুব ভালো সমাধান দেয়। এতে চুল হয় নরম ও ঝরঝরে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..