• রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ০৭:৪৪ পূর্বাহ্ন

খাদ্য সংকটে মারা যাচ্ছে ঘোড়াগুলো

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৩০ মে, ২০২১
  • ১৩৮

বাংলারজমিন২৪.কম ডেস্কঃ

খাদ্য সংকটে একের পর এক মারা যাচ্ছে কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতে পর্যটকদের বিনোদনে ব্যবহৃত ঘোড়াগুলো। গত এক বছরে মারা গেছে ৩০টি ঘোড়া। লকডাউনের কারণে অর্থকষ্টে থাকা ঘোড়ার মালিকরা নিজেদের জীবিকা নিয়েই চরম বেকায়দায়। এ অবস্থায় ঘোড়াগুলোকে দিতে পারছেন না খাবার। 

লকডাউন তাই পর্যটকদের আনাগোনা নাই। এতে মালিকের আয় না থাকায় ঘোড়াদের ভাগ্যে জুটছে না খাবার। খাবারের খোঁজে ঘুরছে কখনো রাস্তায় আবার কখনো খেলার মাঠে বা সৈকতের ঝাউবিথীতে। সবুজ ঘাস খেয়েই ক্ষুধা নিবারণের আপ্রাণ চেষ্টা করছে।

অর্থাভাবে ঘোড়া মালিকরাই যখন খাদ্যের জন্য ছুটছেন তখন ঘোড়ার ভাগ্যে কী করে জুটবে খাবার। তাই ঘোড়াগুলোকে ছেড়ে দেয়া হচ্ছে রাস্তায়। রাস্তায় এসব ঘোড়া ময়লা, পলিথিন খেয়ে হয়ে যাচ্ছে অসুস্থ।

এসব ঘোড়া ব্যবহার হয় কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতের পর্যটকদের বিনোদনের জন্য। পর্যটকরা ছবি তোলে বা ঘোড়ার পিঠে চড়ার বিনিময়ে ঘোড়া মালিকরা পেতেন অর্থ। কিন্তু লকডাউনে খাদ্য সংকটের একের পর এক ঘোড়া মারা যাচ্ছে বলে জানালেন ঘোড়ার মালিক সমিতির সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন।

ঘোড়ার মৃত্যুর বিষয়টি স্বীকার করে জেলা প্রশাসনের ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ মুরাদ হাসান জানালেন, খাদ্য সহায়তা দেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে তাদের।

কক্সবাজারে ঘোড়া ছিল ৮০টি। দুই দফায় লকডাউনে ৩০টি ঘোড়া মারা যাওয়ায় এখন তা নেমে এসেছে পঞ্চাশে। তবে সৈকতে ঘোড়া নিয়ে জীবিকা নির্বাহের অনুমোদন রয়েছে মাত্র ২৭টির।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..