• সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ০১:৪৫ পূর্বাহ্ন

রাজারহাটের নাজিমখায় ভূমিখোর ইঞ্জিনিয়ার মোখলেছুরের হাত থেকে রক্ষা পাচ্ছেনা নিরহ আজিজুর রহমান।

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৮ নভেম্বর, ২০২০
Exif_JPEG_420
(রাজারহাট) কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ
রাজারহাট উপজেলার নাজিম খান ইউনিয়নের মোঃআজিজুর রহমানের বসত ভিটা সহ দোকান ঘর অবৈধভাবে দখলের চেষ্টা করেন প্রতিবেশী মোখলেছুর রহমান।তিনি পেশায় একজন ইঞ্জিনিয়ার হওয়ায় গড়ে তুলেছেন অঢেল সম্পত্তি।সেই সম্পত্তির দাপটে মানছেন না হাই কোর্টের নির্দেশও।
আজিজার রহমান অভিযোগ করে বলেন আমার ক্রয়কৃত জমি যার খতিয়ান নং ৩৩ দাগ নং ৩৫৩,২০০,২০১ও ২০২ মুল মালিক করিম বকস ও তার সন্তানের কাছ থেকে ১৯৯৩সাল হইতে ২০০৭ সাল পর্যন্ত পর্যাক্রমে ক্রয় করি,মোট জমির পরিমাণ ৯.৫০শতাংশ।আমার প্রতিবেশী প্রভাবশী ইঞ্জিনিয়ার মোখলেছুর রহমান একই দাগ ও খতিয়ানে উক্ত মালিকের নিকট হইতে ২০০৮সালে জমি খরিদ করেন।যা সম্পুর্ন বেআইনি ও আইনবিরোধী।
আমার প্রতিবেশী অনেক বিত্তশালী ও প্রভাবশালী হওয়ায় আমার বসত ভিটা ও দোকান ঘর জোর জবরদস্তী করে দখলের চেষ্টা করেন এবং আমাকে সহ আমার স্ত্রী কে মাইর পিট করেন।আমি উক্ত বিষয় রাজারহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে গত ২৮/০৯/২০১৭সালে লিখিত অভিযোগ করলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাজারহাট থানার ওসি কে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ দিলেও অদৃশ্য কারনে তৎকালিন ওসি কৃষ্ণ কুমার সরকার কোন ব্যবস্থা নেয়নি।দীর্ঘদিন অতিবাহিত হওয়ার পর নতুন করে আবার আমার জায়গা দখলের চেষ্টা করলে আমি রাজারহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রাজু সরকার বরাবর অভিযোগ করলে,তিনি বিষয় টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেন।
গতকাল ১৭/১১/২০ আজিজার রহমানের জায়গায় হাইকোর্ট কর্তৃক আদেশপ্রাপ্ত হয়ে সাইনবোর্ড লাগালে ইঞ্জিনিয়ার মোখলেছুর রহমান সেই সাইনবোর্ড ভেঙ্গে ফেলে,যা হাই কোর্ট অবমাননার সামিল।তার দাম্ভিকতা ও দাপটে এলাকার কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পায়না।এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত ১৭/১১/২০ তারিখ আজিজুর রহমান রাজারহাট থানায় লিখিত অভিযোগ করলে রাজারহাট থানার ওসি রাজু সরকার রাত্রি ২ :৩০টায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
তাং ১৮/১১/২০
Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..