• সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৬:৪৪ অপরাহ্ন

ফেসবুকে প্রতারণা, অপপ্রচার

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২৮ আগস্ট, ২০১৯
  • ১৮৪৬ বার পঠিত

ফেসবুকে প্রতারণা, অপপ্রচার

 স্টাফ করেসপন্ডেন্ট/বাংলারজমিন২৪ : সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভুয়া আইডি দিয়ে প্রতারণা ও অপপ্রচার হচ্ছে। এ সব ভুয়া আইডি দ্বারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে অনেকের জীবনে নেমে এসেছে বিপর্যয়। প্রতিকার পাচ্ছেন না ভুক্তভোগীরা।

সূত্র জানায়,আব্দুর রহিম  বিএনপি-জামায়াতের লোকের সাথে তার  যোগসাযোগ  রেখে  ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ এর বিরুদ্দে ফেইজবুকে পোস্ট দিয়ে নানান  অপপ্রচার চালাচ্ছে ,তার ফেসবুকেও এসব ছবি পাওয়া গেছে। তারা প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে নিয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভুয়া আইডির আশ্রয়।ছবি 

সূত্র আরো জানায়, বাংলাদেশে ফেসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় আড়াই কোটি! বাংলাদেশে বর্তমানে প্রতি চারজন ব্যবহারকারীর মধ্যে একজন অর্থাৎ ২৫ শতাংশ স্মার্টফোন ব্যবহার করে। ২০২০ সালে স্মার্টফোনের ব্যবহার আরও বাড়বে। তখন মোট ব্যবহারকারীর ৬০ শতাংশের হাতে এই ফোন থাকবে।

তাদের প্রত্যেকের আইডি রয়েছে। পাশাপাশি রয়েছে ফেক আইডি। কেউ কেউ ভুয়া আইডি খুলে ফেসবুকে বিচরণ করছে। তবে বেশিরভাগ প্রতারণা ও অপপ্রচারের উদ্দেশ্যেই ব্যবহার হচ্ছে। বেশির ভাগদের উদ্দেশ্যই থাকে ভুয়া আইডির মাধ্যমে প্রতিপক্ষকে ঘায়েল। তাদের টার্গেট এখন দেশের ধনী শ্রেণি, স্বনামধন্য সমাজপতিরা।

সম্প্রতি উপজেলার দড়িকান্দি এলাকায় বিয়ের প্রলোভনে এক তরুণীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করে তা মোবাইলে ভিডিও ধারণ করে ছেড়ে দেয় একটি ভুয়া আইডি থেকে। এ ঘটনায় মেয়েটি আত্মহত্যার উদ্দেশ্যে বিষপান করেন। এ ধরনের নানা অপকর্ম হচ্ছে ভুয়া আইডি মাধ্যমে। বাড়ছে আশঙ্কাজনক হারে পরকীয়ার সংখ্যা। এতে পারিবারিক জীবনে নেমে আসছে বিপর্যয়।

একটি সুত্র  বাংলারজমিন২৪কম কে ভুক্তভোগীরা  জানায় বিভিন্ন আইডি দিয়ে আব্দুর রহিম  ম্যাসেঞ্জারে  মেয়েদের ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠায় ,এবং মেয়েদের গবীর রাত্রে ফোন করে ও  বিভিন্ন ধরনের অশ্লীল ছবি পাঠিয়ে উক্তত্য করে ।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ভুক্ত ভোগী নারী বলে আমাকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে কিছু ছবি তুলে রেখে অনলাইনে ছেরে দেওয়ার হুমকি দেয় ,এবং একটি বিকাশ  পাঠায় –

সম্প্রতি আব্দুর রহিম , রহিম চিটাগং,সাঞ্জিদা বাদন ,k sayed,রুনা লায়লা স্যেদ ,রুনা লায়লা , ইত্যাদি ভিবিন্ন নাম ভাঙ্গিয়ে জনসাধনের মানহানি সহ নানান অভিযোগ রয়েছে ,এসব ঘটনায় থানায় সাধারন ডায়েরী করা হয়েছে ,তৎপর পুলিশ। পুলিশ ও আইটি বিশেষজ্ঞরা বলেন, একটি প্রভাবশালী মহল ফেসবুকে ভুয়া আইডি ব্যবহার করে সরকারবিরোধী কর্মকাণ্ডে জড়িত আছে। পাশাপাশি ধর্মীয় উস্কানি প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে, নাশকতামূলক নানা কাজে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সাইভার অপরাধ বেড়েই চলছে।

স্থানীয় সাংবাদিক মাহবুব আলম প্রিয় বলেন, ফেক আইডিগুলোর অধিকাংশে প্রোফাইলের ছবিতেই সুন্দরী নারীর ছবি দেয়া থাকে আবার থাকে। ভুয়া পরিচয়ে ও ছবি দিয়ে মোবাইল সিম বিক্রি হওয়াতে এ ফেক আইডির সংখ্যা বাড়ছে।

কলামিস্ট ও গবেষক লায়ন মীর আব্দুল আলীম বলেন, একটি চক্র নামিদামি ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের নামে ফেসবুকের ভুয়া আইডি ব্যবহার করে নানা রকম অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড চালিয়ে হয়রানি করছে। অবিলম্বে দেশের বিটিআরসি কর্তৃপক্ষকে তাদের চিহ্নিত করে আইনি ব্যবস্থা নিতে পাশাপাশি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানাচ্ছি।

উত্তরা পশ্চিম  থানার পুলিশ কর্মকর্তারা  বলেন, আইসিটি বিভাগ তৎপর রয়েছে। পুলিশ ইতোমধ্যে শতাধিক ভুয়া ফেসবুক পেজ ও আইডি শনাক্ত করেছে।  আমরা এ ভুয়া আইডি শনাক্ত করে এ সব আইডি বন্ধ এবং জড়িতদের ধরে দ্রুত আইনের আওতায় আনতে পুলিশের আইসিটি শাখাকে জানিয়ে ব্যবস্থা নেব। এ ছাড়া টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক কমিশনও (বিটিআরসি) পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছেন। আশা করি কেউ আর প্রতারিত হবেন না।

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..