• শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ০১:৫৯ পূর্বাহ্ন

মাগুরায় এক নারীকে ধর্ষণ চেষ্টা ও মারপিটের অভিযোগে মামলা

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৭ আগস্ট, ২০১৯
  • ১৬৬

মোঃ কাসেমুর রহমান শ্রাবণ

মাগুরা প্রতিনিধিঃ মাগুরা সদর উপজেলার মঘি ইউনিয়নের নিধিপুর গ্রামে এক নারীকে ধর্ষণ চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করার অভিযোগে একই গ্রামের খবির হোসেন নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে মাগুরা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালে মামলা হয়েছে।

রবিবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটেছে।

মঙ্গলবার দুপুরে শুনানী শেষে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালের বিজ্ঞ বিচারক প্রনয় কুমার দাস মামলাটি আমলে এনে সদর উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তাকে আগামী ১৫ সেপ্টেম্বররের মধ্যে বিষয়টি তদন্ত করে প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ দিয়েছে। গুরুতর আহত অবস্থায় ওই গৃহবধূ বর্তমানে মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

ভূক্তভোগী ওই নারীর স্বামী বিকাশ চন্দ্র রায় মামলার অভিযোগে জানান,তার বাড়ির অদুরে খবির হোসেন ও তার ভাইয়ের বাড়ি। খবির ও তার পরিবারের লোকজন প্রায়ই মারপিট দাঙ্গা হাঙ্গামার সাথে জড়িত হয় ও তাদের ভয়ভীতি প্রদর্শণ করে। খবির হোসেন প্রায়ই তার স্ত্রীকে কুপ্রস্তাব দিত। রবিবার বিকেলে বাড়ির লোকজন হাটে যাওয়ায় তাদের বাড়ি ফাঁকা ছিল। এই সুযোগে খবির হোসেন ঘরে ঢুকে তার স্ত্রীকে ধর্ষনের চেষ্টা করে। এ সময় তার স্ত্রী চিৎকার দিলে খবির হোসেন পালিয়ে যায়। পরে খবিরের বিরুদ্ধে স্থানীয় মুরব্বিদের কাছে বিচার দিতে গেলে খবির ও তার ভাই চঞ্চল তার স্ত্রী রিনা রায় কে লোহার রড দিয়ে মারপিট করে। এ সময় খবির ও তার ভাই চঞ্চল হোসেন ওই পরিবারগুলিকে ভিটে ছাড়ার হুমকি দেয় বলে জানান বিকাশ চন্দ্র রায়।

এ ঘটনার পর তিনি তার স্ত্রীকে ওই রাতেই মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। ঘটনার পর থেকে যে কোন সময় আবারও হামলার আশংকায় তারা উদ্বেগ উৎকন্ঠায় আছেন বলে জানান ভূক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা।

এ প্রসঙ্গে মাগুরা আদালতের আইনজীবি ও এপিপি এ্যাড. শাখারুল ইসলাম শাকিল জানান- এ ঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলাটি আমলে এনে আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর ১৯ তারিখের মধ্যে একটি তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে সদর উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা বরাবরে নির্দেশ দিয়েছেন।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..