• রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১০:৩৬ অপরাহ্ন

খাগড়াছড়ি জেলার পানছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৫ আগস্ট, ২০১৯
  • ৪২ বার পঠিত

মো রুবেল/বাংলারজমিন২৪

খাগড়াছড়ি জেলা প্রতিনিধিঃ ২৪ আগষ্ট শনিবার দুপুরে খাগড়াছড়ি জেলার পানছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনের শুরুতে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে অধিবেশন উদ্বোধন করেন খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ট্রান্সফোর্স চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি। এসময় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবরসহ মুক্তিযুদ্ধে নিহত সকল শহিদ ও জোট সরকারের আমলে নিহত সকল আওয়ামীলীগ নেতা-কর্মীদের স্মরনে ১মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

 

পানছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মো. বাহার মিয়া’র সভাপতিত্বে ও উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক জয়নাথ দেব এর সঞ্চালনায় খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগে সভাপতি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন -এক সময় পানছড়িতে আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীরা তাদের মা-বোন, স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে বাড়িতে বসবাস করতে পারতো না। জামাত-বিএনপির লোকজন হামলা -মামলা সহ বিভিন্ন নির্যাতন করেছে । আমরা কোন প্রতিশোধ চাই নাই। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রেখে বসবাস করেছি। দেশে ব্যাপক উন্নয়ন হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামীলগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা রণ বিক্রম ত্রিপুরা, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নির্মলেন্দু চৌধুরী, সহ-সভাপতি কল্যাণ মিত্র বড়ূয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য এ্যাড. আশুতোষ চাকমা, জেলা পরিষদ সদস্য আবদুল জব্বার, খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা মো: শানে আলম প্রমূখ।

 

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ সদস্য খগেশ্বর ত্রিপুরা, জেলা পরিষদ সদস্য মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু, পার্থ ত্রিপুরা জুয়েল, সদর উপজেলা আ.লীগের সাধারন সম্পাদক চন্দন কুমার দে, জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি মেহেদী হাসান হেলাল ও সাধারণ সম্পাদক কেএম ইসমাঈল হোসেন প্রমূখ।

 

২য় অধিবেশনে কাউন্সিলরদের গোপন ভোটের মাধ্যমে সভাপতি পদে ৬ জন প্রার্থির মধ্যে আব্দুল মোমিন বিজয়ী হন, তার নিকটতম প্রতিদ্ধন্ধী বাহার মিয়া । সাধারন সম্পাদক পদে ৪ জন প্রার্থির মধ্যে বিজয় কুমার দেব বিজয়ী হন, তার নিকটতম প্রতিদ্ধন্ধী মো. আবু তাহের। সাংগঠনিক সম্পাদক পদে ১৪ জন প্রার্থির মধ্যে বিজয়ী হন (১) আলমগীর হোসেন (২) হারুন অর রশিদ (৩) নজরুল ইসলাম মোমিন।

 

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..