• রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ০৪:২৪ অপরাহ্ন

ডেঙ্গু ভালো হওয়ার পর যেসব জটিলতা দেখা দিতে পারে

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট, ২০১৯
  • ২৪৯

 স্টাফ করেসপন্ডেন্ট/বাংলারজমিন২৪

রাজধানীসহ সারাদেশে ডেঙ্গু এখন আতঙ্কের নাম। ঈদের আগে ডেঙ্গুর প্রকোপ কিছুটা কমলেও এখন হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে। ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হওয়া শেষ নয়। প্রতিদিনই কেউ না কেউ মারা যাচ্ছে। সব মিলিয়ে মহামারি রুপ নিয়েছে ডেঙ্গু।

এডিস মশা স্বচ্ছ-পরিষ্কার পানিতে ডিম পাড়ে। তাই ডেঙ্গু প্রতিরোধে এডিস মশার ডিম পাড়ার উপযোগী স্থানগুলোকে পরিষ্কার রাখতে হবে। এ ছাড়া মশক নিধনের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে।

তবে ডেঙ্গু থেকে বাঁচতে হলে সবার আগে প্রয়োজন সচেতনতা। আর ঘরবাড়ি পরিষ্কার রাখতে হবে।

ডেঙ্গুজ্বর নেমে যাওয়ার পর রোগীর পরিচর্যা।

১. ডেঙ্গু রোগীর রক্তের উপাদান কমে যাওয়া কিংবা রক্তের ঘনত্ব বেড়ে যাওয়ার মতো সমস্যা জ্বর চলে যাওয়ার পরেই দেখা যায়। তাই এ সময় কোনো জটিলতা দেখা দিলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

২. ডেঙ্গু ভালো হওয়ার পরে রক্তের ভেতরের তরল অংশ বের হয়ে আসা, রক্ত ঘন হয়ে যাওয়া কিংবা রক্তের প্রেশার কমে যেতে পারে। তাই এর চিকিৎসা একটাই স্যালাইন নেয়া বা প্রয়োজনে শিরায় স্যালাইন দেয়া।

৩. রক্তের প্লাটিলেট নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। প্লাটিলেট অতি মাত্রায় কমে না গেলে এ নিয়ে ব্যবস্থাও নিতে হবে।

৪. রক্তের প্লাটিলেট কমে গেলে স্যালাইন দেয়ার পাশাপাশি ডাবের পানি, ওরস্যালাইন, লেবুর শরবত- এসব প্রচুর পরিমাণে খাওয়াতে হবে, যাতে প্রেশার কমে রোগী শক সিনড্রোম পর্যন্ত না যায়।

৫. ফ্লুয়িড ম্যানেজমেন্ট অর্থাৎ তরল খাবার ঠিকমতো খেলে ডেঙ্গু নিয়ে ভয়ের কোনো কারণ নেই।

জ্বর ভালো হলে রোগীকে সচেতনভাবে চিকিৎসকের পরামর্শ মতো চলতে হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..