• বুধবার, ১৯ মে ২০২১, ০৯:১১ পূর্বাহ্ন

যৌতুকের দায়ে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ জিন্নাত আরাকে হত্যা বিচার দাবিতে এলাকাবাসীর বিক্ষোভ ও মানববন্ধন

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২১ আগস্ট, ২০১৯
  • ১৩৩

 

আশরাফুল ইসলাম/বাংলারজমিন২৪

গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধিঃ যৌতুকের দায়ে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ জিন্নাত আরাকে হত্যার বিচার দাবিতে এলাকাবাসীর বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করে এলাকাবাসী। মঙ্গলবার সকালে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসকের নিকট এলাকাবাসী স্মারকলিপি প্রদান করেন। গত ১৬.০৮.২০১৯ গাইবান্ধার সদর উপজেলার জোদ্দকড়িসিং গ্রামের ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা জিন্নাত আরার হত্যার ঘটনা ঘটে।

পরিবার ও এলাকাবাসী বলেন, যৌতুকের দাবিতে জিন্নাত আরাকে শারীরিক ভাবে নির্যাতন করে হত্যা করে এবং হত্যা কান্ডকে ভিন্ন খাতে প্রভাবিত করে আত্মহত্যা বলে অপপ্রচার চালাচ্ছে। জিন্নাত আরার পিতা গত ১৬.০৮.২০১৯ ইং তারিখে সকলা ৯টার দিকে সদর থানায় এজাহার করতে গেলে সদর থানা এজাহার গ্রহণ না করে অপমৃত্যু বলে বাদীর স্বাক্ষর গ্রহণ করেন। বাদীর কন্যা জিন্নাত আরার হত্যাকান্ডের মামলা না হওয়ায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে জানতে পেরে আবারও ১৭.০৮.২০১৯ ইং তারিখে হত্যার এজাহার দায়ের করতে গেলে সদর থানা এজাহার গ্রহণ না করে বিজ্ঞ আদালতে মামলা করার পরামর্শ দেন। বাদী অত্র মামলাটি বিজ্ঞ আদালতে দায়ের করেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ১ লক্ষ টাকা যৌতুকের দায়ে তার পাষন্ড স্বামী মামুন সহ মা মাফরুজা, ছোট বোন মৌসুমী, ভগ্নিপতি হারুনুর রশিদ, বড় ভাই মিঠু ও মাসুদ সহ সকলে পরিকল্পিত ভাবে মুখে বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করে। হত্যার পর আসামী মামুনের শয়ন ঘরের বিছানার উপর বাঁশের ধরনার সাথে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ঝুলিয়ে রাখে। আসামী মামুন ঘটনার দিন আনুমানিক সকাল ৭টার সময় মোবাইল ফোনে জিন্নাত আরার বাবাকে তার মেয়ে নিজেই গলায় ফাঁস দিয়া আত্মহত্যা করেছে বলে জানায় এবং আসামীগণ বাড়ী থেকে পালিয়ে যায়। জিন্নাত আরা ৫ মাসের গর্ভবতী ছিলো।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..