• সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৬:১৬ অপরাহ্ন

‘যদি আপনি কখনো শুনেন যে ৫০ এর পরে আপনার পিঠ এবং অস্থিসন্ধি সমূহের নিরাময় অসম্ভব, তবে আপনার জানা উচিত যে এটি সত্য নয়!’

  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট, ২০১৯
  • ১২১ বার পঠিত
বাংলারজমিন২৪/অনলাইন প্রতিনিধি-

মতিন চৌধুরী 
চিকিৎসক, চিকিৎসা বিজ্ঞান, বাংলাদেশ। আধুনিক কাইনেসিয়থেরাপির (নিউরোলজি এবং অর্থোপেডিক্স ) জনক – যা দীর্ঘস্থায়ী ব্যাধি এবং আঘাত মাস্কোলোস্কেলিটাল পদ্ধতিতে নিরাময়ের একটি বিকল্প পদ্ধতি। এই নতুন পদ্ধতির মূল নীতিতে কোন পথ্য বা কোন পোশাক পরিধান করতে হয় না, এটি আপনার নিজস্ব শরীর এবং এর সম্ভাব্যতা আরও ভালভাবে বোধগম্য করে।
চিকিৎসার অনুশীলনঃ ৩০ বৎসরের বেশী

‘একটি সহজ সত্য মনে রাখুন এবং কারও কথা শুনবেন না: অস্থিসন্ধির ব্যাধি বৃদ্ধ বয়সেও চিকিৎসাযোগ্য।’

এই চিকিৎসক দাবী করেন যে, তিনি অস্তেওশনড্রসিস নিরাময় করতে পারেন যা তিনি ১৮ বৎসরেরও কিছু সময় ব্যাপি এর উন্নয়ন করেছেন। যার মাধ্যমে অতি বয়স্কা যে কিনা চরম বাতের ব্যাথায় ভুগছিলেন ৭৮ দিন যাবৎ, তার নিরাময় করেন। অস্থিসন্ধির ব্যাথায়, যদি যথাযথভাবে চিকিৎসা করা যেত, তাদের ৪ দিনের মধ্যে যেতে হতো! তার ৪৮ বৎসর চিকিৎসা অনুশীলনে, সে প্রতিটি বক্তব্যে কিভাবে তা কার্যকর তা নিশ্চিত করে। বাংলাদেশ “চ্যানেল ১” প্রদর্শনের পরে তাৎক্ষনিক ভাবে ( প্রোগ্রামের টপিক ‘কিভাবে যে কোন বয়সে সুস্থ অস্থিসন্ধি পাওয়া যায়’ ) খাতিমান চিকিৎসক মতিন চৌধুরী সম্মত হয়েছেন সাক্ষাৎকার প্রদানে।

কেমন আছেন ডঃ মতিন, আপনার মতে এই বক্তব্য কি যথার্থ, যে সন্ধি ব্যাধি এবং অস্টিওচন্ড্রোসিস প্রাপ্তবয়স্কের জন্য অনিবার্য?

হ্যালো, জামিলা, অবশ্যই তা সত্য ন্য। ১০ বছরের জন্য আপনার নিরাময় করার চেষ্টা করে এমন চিকিৎসকের উপর অত্যধিক আস্থা কিন্তু তা করার ক্ষেত্রে সফল হয় না, এটি প্রাপ্তবয়স্কের জন্য অপরিহার্য। আসলে, যে কোনও বয়সে অস্থি সন্ধিতে, চন্দ্রোসিস এবং সমগ্র হাড়ের সিস্টেমটি খুব ভালভাবে চিকিৎসা করা যেতে পারে। এবং এটি অলৌকিক কোন ঘটনা নয়, বিশুদ্ধ বিজ্ঞান।

যদি আপনি গোপন ব্যাপার জানেন এবং স্ব-শৃঙ্খলা রক্ষার ক্ষেত্রে কিছুটা প্রচেষ্টা করেন তবে আপনি এই রোগটি খুব দ্রুত চিকিৎসা করতে পারেন, আমার হাজারও রোগী এটি করে।

এবং গোপন ব্যাপারটি কি?

আপনার ব্যাথার কারন বোধগম্যতা হলো গোপন বিষয়। সামগ্রিকভাবে ১৪৭ টি সম্ভাব্য বিভিন্ন কারনে অস্টিওচন্ড্রোসিস ও বাত চিকিৎসা শাস্ত্রে তালিকাভুক্ত, কিন্তু এর প্রভাব এক এবং একই সন্ধি, ভেরটেব্রা ও উপসর্গের স্থিতিস্থাপকতা কমে, যেখানে ব্যাথা। রক্ত সঞ্চালন কম থাকায় তা ছিঁড়ে যায়।

এটিই সম্পূর্ণ গোপনীয়, আমরা অস্থি সন্ধির রক্ত সঞ্চালন পুনঃস্থাপনে নিরাময় করি।

কিন্তু ৪৫ বৎসরের পরে কি রক্ত সঞ্চালন পুনরুদ্ধার করা প্রায় অসম্ভব বলে মনে হয় না?

এটি সম্পূর্ণ বোকামি। আমি নিজে হুইল চেয়ার ছেড়েছি আঘাতের পরে এবং তা অনেক জটিল হয়েছিল মাত্র ৪৫ বৎসরে।

আপনি কি অন্য কাউকে হুইল চেয়ার থেকে রক্ষা করেছেন?

হ্যাঁ, একাধিক। কিন্তু আমার প্রায় সকল রোগী ৪০ ঊর্ধ্ব এবং যাদের এই রোগ প্রাদুর্ভাব ঘটে আরও বয়সে। তারা একই ধরনের সমস্যা নিয়ে আমার কাছে আসেঃ অস্টিওচন্ড্রোসিস, বাত, রডিকুলাইটিস, স্নায়বিক টান। এসব ব্যাধি রোগীকে অবশান্ত করে এবং স্বাভাবিকভাবে বাঁচতে দেয় না।

মানুষ এতে ব্যথার অভিযোগ করে, এমনকি হাঁটাও কষ্টকর। এসব মানুষ কোন ক্রীড়াবিদ, অক্ষম নয়। তারা কেঁদে বলে, ‘কেন আমাকে? আমি কি করেছিলাম?’ আমি তাদের জবাব দেই খুব সাধারনভাবে, ‘অনর্থক কথা বন্ধ করে, রক্ত সঞ্চালন পুনরুদ্ধারের শুরু করুন।’

কিভাবে এই বয়সে আপনি রক্ত পুনঃস্থাপন করবেন?

সম্প্রতি একটি জটিল আন্দোলন প্রোগ্রামের সাহায্যে আমার রোগীদের প্রশিক্ষক দ্বারা ৯৬ টি ব্যায়ামের মাধ্যমে চিকিৎসা করেছি। এটি অত্যন্ত কার্যকরী মাধ্যম, যদিও অনেক দীর্ঘ ও শক্ত।
এতে আঘাত হয়, কঠিন এবং জিমে যাবার সময় নেই। আমি বিশ্বাস করতাম যে আরও সহজতর ও আধুনিক উপায় যা আমি দেখেছি।

কতটা আকর্ষণীয়! আপনি কি তা আমাদের পাঠকদের উদ্দেশ্যে বলবেন?

অবশ্যই। বাংলাদেশে প্রথম অস্টিওচন্দ্রোসিস এবং যৌথ ব্যথা নিরাময়ে একেবারে নতুন প্রত্যয়িত সেবা আমাদের এই কেন্দ্রে পাওয়া যাবে। আমাকে স্বীকার করতে হবে যে, যখন আমি প্রথম এই সেবা যখন শুনেছিলাম, এর কার্যকরীতা বিশ্বাস না করার জন্য আমি হেসেছিলাম। কিন্তু আমি আশ্চর্য হয়ে যাই যখন আমাদের পরীক্ষার ফলাফল হাতে পাই- ৪৫৬৭ জন রোগী সম্পূর্ণ নিরাময় লাভ করে এবং যা ৯৪% সফলতা লাভ করে সকল পর্যায়ে, ৫.৬ ভাগের যথেষ্ট উন্নতি হয় এবং শুধু ০.৪% অপরিবর্তিত থাকে।

এটা কি ধরনের প্রতিকার?

আমি একটি অনন্য প্রতিকারের ব্যাপারে বলছি। Flekosteel এই বামটির মাধ্যমে তাৎক্ষনিক পিঠে ও সন্ধিতে ব্যাথা দূরীভূত সম্ভব, ৪ দিনের বেশী নয়, এবং চরম দুর্ভোগের কালে কয়েক মাসে নিরাময় করে।

এটির ফর্মুলা তৈরিতে ১.৩ মিলিয়ন ডলারের ব্যয় হয় এবং ১৩ মিলিয়ন ডলার ব্যয় হয় সারা দেশে পণ্য পরিবেশকের জন্য।

এর মানে কি যে একমাত্র বাংলাদেশে এই Flekosteel পাওয়া যাবে?

এই মুহূর্তে হ্যাঁ। কিন্তু জানুয়ারীর প্রথম থেকে এটি এশিয়ার সকল নাগরিকের কাছে পৌঁছাবে।

কিভাবে এই অলৌকিক বাম কাজ করে?

অলৌকিক কিছু নয়, শুধুমাত্র বিশুদ্ধ বিজ্ঞান। Flekosteel বামে রয়েছে ৩২ টি শক্তিশালী উপাদান যা পুরাতন দুর্বল কোষ এর সংস্পর্শে ৭ গুণ দ্রুততর করে, এভাবে কোষসমূহ ধীরে ধীরে পুনরুজ্জীবিত হয়।

শুধুমাত্র প্রভাবিত এলাকায় এই বাম এক বার প্রয়োগে আপনি ৯৩০০০ কোষসমূহকে আরও বেশি সক্রিয় করবে যা আপনার রক্ত প্রবাহ উন্নত করবে। এভাবে এই চিকিৎসা চলমান। যা প্রধানত স্থায়িত্ব লাভ করে।

অসাধারন। কিন্তু আমাদের আরও ব্যাখ্যা প্রয়োজন, যাতে মানবের অন্যান্য সাধারন ব্যধিতে কি অর্থে হতে পারে।

এর মানে মধ্যযুগীয় বাংলাদেশি পথ্যটি অবশেষে আদি কালের হয়ে উঠছে এবং ১-২ মাসের মধ্যে বাড়িতে রোগ নিরাময় করতে পারেন।Flekosteel বাম কোন হিমায়িত বা অনাস্থায়ী প্রভাব নেই, এটি একটি সেলুলার স্তরে দেহকে ‘পুনরায় চালিত’ করে। এটি যন্ত্রণাদায়কের অন্তর্নিহিত কারণকে সরিয়ে দেয় এবং স্বাভাবিক অবস্থায় সন্ধি এবং মেরুদণ্ড রাখে। রোগীর শুধু লক্ষণ থেকে পরিত্রাণ পায় না, রোগের মূলটিও নির্মূল করে – ধীরে ধীরে মৃত কোষগুলির কারণে দুর্বল রক্ত প্রবাহ।

একদম প্রথম দিকে বামটি দেহের পুনঃজন্ম পদ্ধতিকে কার্যকরীভাবে উন্নত করে। এটি ব্যাথার উপসর্গ থেকে মুক্ত করে, যা আপনার তাৎক্ষনিক অনুভূত হবে। ২-৩ সপ্তাহে চিকিৎসা শেষ হবে, কিন্তু মনে রাখতে হবে কোর্সটি পুনঃব্যবহারে স্থায়ী ভাবে প্রতিরোধ করা যাবে।

বামটিতে কি Flekosteel  আর্থ্রোসিস ও অষ্টিওশনড্রসিস একচেটিয়া নিরাময়ে সাহায্য করে?

না, যা আমি চেষ্টা করছি আপনাকে বোঝাতে। এটি রক্তের প্রবাহ পুনঃরুদ্ধারে কোষীয় স্তরে কাজ করে। মেরুদণ্ড ও অস্থি সন্ধির যে কোন রোগ নিরাময়ে এটি কাজ করে। আর্থ্রোসিস এবং আর্থারিসিস, সাইটিটিকা, রিউম্যাটিজম, রেডিকুলাইটিস, হার্নিয়েটেড মেরুদণ্ড। আঘাতের, ত্রমা, আঘাত, ফাটা, এমনকি কলুসেসে।

এটি অত্যন্ত অদ্ভুৎ প্রতিকারের মত মনে হয়। সত্যিই কি এই সমস্ত রোগগুলোকে দূর করে, শুধু ব্যথা উপশম করে না?

Flekosteel বাম ব্যথা কমিয়ে দেয় (চিকিৎসার প্রাথমিক পর্যায়ে) এবং অবশেষে সম্পূর্ণভাবে এই রোগটি নির্মূল করে। আমাকে বিভ্রান্ত করবেন না, আমি ব্যায়াম এবং খেলাধুলা পছন্দ করি এবং আমি তা ছেড়ে দিতে যাচ্ছি না, তবে আমার বেশীরভাগ রোগীর জন্য এই বামটি সবচেয়ে সহজ ও কার্যকর ও সহজলভ্য চিকিৎসা পদ্ধতি।

আমার ধারনা অনেকেই এটি কোথায় পাওয়া যেতে পারে তা জানতে চাইতে পারে।

আমরা ফার্মেসীতে এটি বিক্রি শুরু করতে চেয়েছিলাম, কিন্তু আমরা ফার্মাসিস্টদের সাথে আলোচনায় সন্তুষ্ট হই না, কারণ এই বাম তাদের ব্যবসার সমস্যা করতে পারে। মানুষ বছর ধরে তাদের ওষুধ কিনে রাখে এবং চিকিৎসার প্রয়োজনে আরো বেশি সংখ্যক রয়েছে – এটি ফার্মাসিস্টদের ক্ষেত্রে উপযুক্ত বিষয়গুলির প্রকৃত অবস্থা।

যদিও কিছু সুবিধা আছে – আমরা সরাসরি মাধ্যম ব্যতিত, বিক্রি করি, যা দাম কমিয়ে দেয় ৪.৭ গুণ সস্তা।

অর্থ প্রাপ্তির পরে পণ্য সরবরাহ করা হয় শিপিং এর মাধ্যমে মেইলে, যেহেতু এটি একটি গৃহ চিকিৎসা, কোন বিশেসজ্ঞের প্রয়োজন নেই। যদিও আমার বক্তব্য আপনার নিষ্প্রয়োজন। প্রয়োজনে আপনি অন্য উৎপাদকের পণ্যের সাথে এর তুলনা করতে পারেন। আমি নিশ্চিৎ যে, এই Flekosteel এর মতো কার্যকরী কোন পণ্য কোথাও পাবেন না।

ধন্যবাদ, ডাক্তার, আপনার এই সাক্ষাৎকারের জন্য! শেষ করার পূর্বে যদি আপনি কিছু বলতে চান আমাদের দর্শকদের উদ্দেশ্যে?

হ্যাঁ, অবশ্যই। আমি আমাদের দর্শকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি যে পিঠ ও সন্ধির ব্যধি আরও ‘ছোট’ হয়ে যায়, মানে শুধুমাত্র বৃদ্ধদের জন্য এটি নয় এখন। এমনকি চাপা ব্যাথা যা কি না আপনি অবশ্যই উপেক্ষা করতে পারেন না। আপনার ডাক্তার এই চিকিত্সা পেতে আপনাকে অনুপ্রানিত করবে না।

এবং মনে রাখবেন: যৌথ এবং মেরুদন্ডের সৃষ্ট ব্যধি শুধুমাত্র অস্বস্তি নিয়ে আসে না। তা আপনার ১০-১৫ বৎসরের আয়ুকাল কমাতেও পারে।

পিএসঃ ডাক্তার প্রথম ৫০ জন ক্রেতাকে ডিসকাউনটে Flekosteel দিতে সিদ্ধান্ত নিয়েছে! যান এবং আপনি একজন সৌভাগ্যবান হতে পারেন।

সাক্ষাতগ্রহনকারী জামিলা বেগম
উন্মুক্ত স্থান থেকে ছবি সংগৃহীত

Facebook Comments

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..